২৭ রোহিঙ্গাকে আটক করে ক্যাম্পে ফেরত পাঠালো পুলিশ

  চকরিয়া প্রতিনিধি

১৩ সেপ্টেম্বর ২০১৭, ১৫:৪৩ | আপডেট : ১৩ সেপ্টেম্বর ২০১৭, ১৫:৪৪ | অনলাইন সংস্করণ

মিয়ানমার সেনা বাহিনীর অত্যাচার, নির্যাতনের হাত থেকে রক্ষা পেতে বাংলাদেশে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গারা আশ্রয় নিয়েছে কক্সবাজারের উখিয়া-টেকনাফ ও নাইক্ষ্যংছড়ির বিভিন্ন অস্থায়ী ক্যাম্প ছাড়াও নিকটবর্তী বনভূমিসহ লাগোয়া জনপদে। আশ্রয় নেওয়া অধিকাংশ রোহিঙ্গা সড়ক ও পাহাড়ি পথ দিয়ে শহর ও গ্রামীণ এলাকাগুলোতে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করছে।

গত ১৫ দিনে অন্তত ১০ হাজার রোহিঙ্গা চকরিয়ার বিভিন্ন এলাকায় আশ্রয় নিয়েছে পূর্বে আসা রোহিঙ্গা আত্মীয়দের কাছে। আর ক্যাম্প থেকে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গাদের আটক করতে মাঠে নেমেছে পুলিশ প্রশাসন।

চট্টগ্রাম পালিয়ে যাওয়ার সময় চকরিয়া উপজেলার মালুমঘাট হাইওয়ে পুলিশ অভিযান চালিয়ে ২৭ জন রোহিঙ্গা নারী-পুরুষ ও শিশুকে আটক করেছে। পরে তাদেরকে উখিয়াস্থ কুতুপালং শরণার্থী ক্যাম্পে ফেরত পাঠানো হয়েছে।

গত সোমবার থেকে আজ বুধবার পর্যন্ত তিনদিনে উপজেলার ডুলাহাজারা ইউনিয়নের বিভিন্ন গ্রাম থেকে হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির আইসি এসআই মো. রুহুল আমিনের নেতৃত্বে পুলিশ ফোর্স অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করেন।

অভিযানের সত্যতা নিশ্চিত করে মালুমঘাট হাইওয়ে পুলিশের আইসি (ইনর্চাজ) মো. রুহুল আমিন বলেন, মিয়ানমার থেকে পালিয়ে আসা অন্তত ২৭ জন রোহিঙ্গা নারী-পুরুষ ও শিশু কয়েকদিন আগে চকরিয়া উপজেলার ডুলাহাজারা ইউনিয়নের বিভিন্ন গ্রামে আশ্রয় নেয়। পরে ওইসব রোহিঙ্গা মহাসড়ক হয়ে চট্টগ্রামের দিকে চলে যাচ্ছে শুনে স্থানীয় এলাকাবাসীর সহায়তায় তাদের আটক করা হয়।

তিনি আরও বলেন, পরে প্রশাসনের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের নির্দেশে একটি গাড়িতে করে আটক রোহিঙ্গাদের  উখিয়া উপজেলার কুতুপালং শরনার্থী ক্যাম্পে ফেরত পাঠানো হয়েছে।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
  • নির্বাচিত

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে