‘ত্রাণবাহী ট্রাক আটকে দেওয়া মানবতার বিরুদ্ধে অবরোধ’

  নিজস্ব প্রতিবেদক

১৪ সেপ্টেম্বর ২০১৭, ১৩:৫৯ | অনলাইন সংস্করণ

মিয়ানমার থেকে পালিয়ে আসা অসহায় রোহিঙ্গা শরণার্থীদের ত্রাণ দিতে না দেওয়া এবং ত্রাণবাহী ট্রাক আটকে দেওয়ার ঘটনাকে মানবতার বিরুদ্ধে অবরোধ বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

আজ বৃহস্পতিবার নয়াপল্টনের দলীয় কার্যালয়ে আয়োজিত এক প্রেস ব্রিফিংয়ে তিনি এ মন্তব্য করেন।

গত ১৩ সেপ্টেম্বর রোহিঙ্গাদের পাশে দাঁড়ানোর জন্য ২২ ট্রাক ত্রাণ নিয়ে বিএনপির জাতীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য ও সাবেক মন্ত্রী মির্জা আব্বাসের নেতৃত্বে কক্সবাজার থেকে উখিয়া রওনা দিলে পুলিশ তাতে বাধা দেয়। নেতৃবৃন্দকে বিএনপি অফিসে অবরুদ্ধ করে রাখে।

এ ঘটনা উল্লেখ করে মির্জা ফখরুল বলেন, ত্রাণের নামে আওয়ামী লীগ বিশাল লুটপাটের সুযোগ সৃষ্টি করে। মানুষের জন্য ত্রাণ সংগ্রহ করা, আর তা বিতরণ করতে যাওয়া এক নয়। লোক দেখানো কাজ আপনারা করেন। লোক দেখানোর নামে উন্নয়নের লুটপাট আপনাদের স্বভাবজাত।

তিনি বলেন, অন্য কাউকে ত্রাণ দেওয়ার সুযোগ না দেওয়া মানবতার বিরুদ্ধে অবরোধ হিসেবে গণ্য হবে।

সংবাদ সম্মেলনে জিয়া পরিবারের সদস্যদের বিদেশে টাকা পাচারের তদন্ত হচ্ছে, প্রধানমন্ত্রীর এমন মন্তব্যের সমালোচনা করে মির্জা ফখরুল বলেন, এ ধরনের প্রচারণা সম্পূর্ণ মিথ্যা, ভিত্তিহীন ও বানোয়াট। হীন রাজনৈতিক উদ্দেশ্য ও জনগণকে বিভ্রান্ত করতে এবং রোহিঙ্গা সমস্যার মোকাবেলায় ব্যর্থতা ঢাকতেই শেখ হাসিনা ও মন্ত্রিপরিষদের সদস্যবৃন্দ এমন মিথ্যাচার করছেন।

তিনি অভিযোগ করেন, এ সরকার আকণ্ঠ দুর্নীতিতে নিমজ্জিত। মেগাপ্রজেক্টের নামে সরকার বিলিয়ন ডলার লোপাট করছে। লুট করছে জনগণের সম্পদ। শেয়ার মার্কেট লুট, ব্যাংক লুট, পাওয়ার প্লান্ট, পদ্মা সেতু, কুইকরেন্টাল, মেট্রোরেল, এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ে, উড়াল সেতুতে হাজার হাজার কোটি টাকা লোপাট করে এখন জিয়া পরিবারের সদস্য এবং গণতন্ত্রের আপসহীন নেত্রীর বিরুদ্ধে মিথ্যাচার করা হচ্ছে।

 

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
  • নির্বাচিত

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে