মসজিদ কমিটির স্বাক্ষর জাল করে ইউপি সদস্যের টাকা আত্মসাত

প্রকাশ | ০৬ অক্টোবর ২০১৭, ১৫:০৪ | আপডেট: ০৬ অক্টোবর ২০১৭, ১৫:১০

লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি

লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার পার্বতীনগর ইউনিয়নে মসজিদের জন্য জেলা পরিষদের বরাদ্ধকৃত এক লাখ টাকা আত্মসাতের অভিযোগ উঠেছে ইউপি সদস্য (৯ নং ওয়ার্ডের) শামছুল ইসলাম বাবুর বিরুদ্ধে। এক লাখ টাকা আত্মসাতের বিষয়টি জানতে পেরে এলাকাবাসী ও মসজিদের মুসুল্লিদের মাঝে  চরম ক্ষোভ ও অসন্তোষ দেখা দিয়েছে।

এদিকে এ ঘটনার বিচার দাবি করে জেলা পরিষদ নির্বাহী বরাবরে লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন হাজী জিন্নাত আলী মুন্সিবাড়ী জামে মসজিদ কমিটির লোকজন। ঘটনার পর থেকে ইউপি সদস্য শামছুল ইসলাম বাবু এলাকা ছেড়ে অন্যত্র পালিয়ে বেড়াচ্ছেন।

হাজী জিন্নত আলী মুন্সিবাড়ী জামে মসজিদ কমিটির সভাপতি নুরুল আমিন ও সাধারণ সম্পাদক শেখ ফরিদ জানান, বিগত কয়েক মাস পূর্বে লক্ষ্মীপুর জেলা পরিষদ থেকে মসজিদের উন্নয়নমূলক কাজ করার জন্য এক লাখ টাকা বরাদ্ধ দেওয়া হয়। ওই টাকার খবর পেয়ে ইউপি সদস্য শামছুল ইসলাম বাবু গোপনে মসজিদ কমিটির সিল-স্বাক্ষর জালিয়াতি করে উত্তোলন করে। পরে মসজিদ কমিটির লোকজন বিষয়টি জানতে চাইলে ইউপি সদস্য অন্যত্র গিয়ে মোবাইল ফোন বন্ধ রাখেন। এ ঘটনায় ৩ অক্টোবর বিচার চেয়ে জেলা পরিষদ বরাবরে লিখিত অভিযোগ দেওয়া হয় ওই ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে।

স্থানীয়রা জানান, সদর উপজেলার পার্বতীনগর ইউনিয়নের (৯ নং ওয়ার্ডের) ইউপি সদস্য শামছুল ইসলাম বাবু নির্বাচিত হওয়ার পর নির্বাচনে খরচ হওয়া টাকা উত্তোলনে বেপরোয়া হয়ে উঠেন। সরকারি বেসরকারি বিভিন্ন প্রকল্পের টাকা আত্মসাত করার অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে।

অভিযোগের ব্যাপারে জানতে চাওয়া হলে শামছুল ইসলাম বাবু জানান, তার বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ সম্পূর্ণ মিথ্যা। তবে মসজিদের জন্য জেলা পরিষদের দেওয়া এক লাখ টাকার চেক গ্রহণ প্রক্রিয়া শেষ করেছেন বলে জানান তিনি।

জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. শাহজাহান জানান, হাজী জিন্নত আলী মুন্সিবাড়ী জামে মসজিদ কমিটির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক জেলা পরিষদ নির্বাহী বরাবর আবেদন করেছে। মসজিদের টাকা আত্মসাতের ঘটনায় তিনিও ব্যবস্থা নিবেন বলে জানান চেয়ারম্যান।