'বিচার বিভাগের স্বাধীনতা নস্যাৎ করেছে সরকার'

রাষ্ট্রের স্বাধীন অঙ্গের ওপর ক্ষমার অযোগ্য গুণ্ডামি চলছে: রিজভী

প্রকাশ | ০৬ অক্টোবর ২০১৭, ১৬:৫৬ | আপডেট: ০৬ অক্টোবর ২০১৭, ১৯:৩২

নিজস্ব প্রতিবেদক

বাংলাদেশের সরকার বিচার বিভাগের স্বাধীনতা নস্যাৎ করেছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ। তিনি বলেন, যিনি বিচার বিভাগের স্বাধীনতার প্রতিনিধিত্ব করেন সেই প্রধান বিচারপতির বেহাল অবস্থা করেছে সরকার। এই সরকার সুপ্রিম কোর্টের সম্মান ও ভাবমূর্তি নষ্ট করে দিয়েছে। এইখানেই সব কিছুর শেষ নয়। আরো অনেক কিছু ঘটবে।

শুক্রবার জাতীয় প্রেসক্লাবে এক গোলটেবিল আলোচনা সভায় এসব কথা বলেন তিনি। 'চলমান সংকটের সমাধান কোন পথে' শীর্ষক এ সভার আয়োজন করে ডেমোক্রেটিক মুভমেন্ট নামের একটি সংগঠন।

মওদুদ আহমদ বলেন, প্রধান বিচারপতির বিরুদ্ধে নালিশের প্রধান একটা কারণ হলো, তিনি বলেছিলেন যে- দেশের স্বাধীনতা একজনের জন্য হয়নি, সকল মানুষের জন্য হয়েছে। এ জন্যই এত বিদ্বেষ, এত ক্ষোভ। আজকে এই যে সংকট, গণতন্ত্র দেশে নেই, এর পরিবর্তে যদি দেখতাম রাজনীতি আছে, গণতন্ত্র আছে। কেন আমরা ভাষা আন্দোলন, গণ অভ্যুত্থান, মুক্তিযুদ্ধ করেছি? একটা বিরাট আশা নিয়ে করেছিলাম যে, দেশ প্রাণচঞ্চল থাকবে, মৌলিক অধিকার থাকবে, কার্যকর একটা সংসদ থাকবে।

এদিকে, বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেছেন, রাষ্ট্রের স্বাধীন অঙ্গের ওপর ক্ষমার অযোগ্য গুণ্ডামি চলছে। বিচার বিভাগের মেরুদণ্ডের ওপর আঘাত করা হয়েছে। সরকারের বিরুদ্ধে কথা বলায় এস কে সিনহাও ক্ষোভ ও ক্রোধের শিকার হয়েছেন। বিচারপতির অসুস্থতার তথ্যটিও ভুয়া। আজ সকালে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে বাংলাদেশ কল্যাণ পার্টি আয়োজিত এক মানববন্ধনে তিনি এসব কথা বলেন। দলটির মহাসচিব আমিনুর রহমানকে অপহরণের প্রতিবাদে এ মানববন্ধন হয়।

রিজভী আরও বলেন, একাত্তরের চেতনা কি এই ছিল? আওয়ামী লীগের বিরুদ্ধে কথা বললেই গুম হবে? মুক্ত বক্তা ও দৃঢ়চেতা মানুষদেরকে সরকার পছন্দ করে না বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

মহাসচিবকে দ্রুত উদ্ধারের দাবি জানিয়ে, কল্যাণ পার্টির চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল (অব) সৈয়দ মুহাম্মদ ইব্রাহিম বলেন, রাজনৈতিক সরকারকে মনে রাখতে হবে, তারা চিরজীবনের জন্য ক্ষমতায় আসেননি। আমলনামা সবাইকেই দিতে হবে।