নাটোরে প্রকাশ‌্যে কলেজশিক্ষককে গুলি করে হত্যা

  নাটোর প্রতিনিধি

১২ জানুয়ারি ২০১৭, ১৫:৪৬ | আপডেট : ১২ জানুয়ারি ২০১৭, ২০:১১ | অনলাইন সংস্করণ

নাটোরের লালপুর উপজেলায় কলেজ থেকে বাড়ি ফেরার সময় প্রকাশ্যে রাস্তায় এক শিক্ষককে গুলি করে হত্যা করা হয়েছে। লালপুরের দিকে প্রায় এক কিলোমিটার ভেতরে বাদলিবাড়ি গ্রামে পুলিশ বক্সের সামনে মোশারফকে গুলি করে দুর্বৃত্তরা তার মোটরসাইকেলটি নিয়ে গেছে। এ নিয়ে এ মাসে দিনের বেলা লালপুরে চারটি মোটরসাইকেল ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটল।

লালপুর থানার ওসি আবু ওবায়েদ জানান, বৃহস্পতিবার দুপুর সোয়া ১টার দিকে লালপুর-বাঘা সড়কের তিনখুঁটির মোড়ে এই হত্যাকাণ্ড ঘটে। নিহত মোশাররফ হোসেন (৩৫) লালপুরের মোহরকয়ার ডিগ্রি কলেজের বাংলার প্রভাষক ছিলেন। তিনি রাজশাহীর বাঘা উপজেলার পীরগাছা গ্রামের মোহাম্মদ আলীর ছেলে।

ওসি আবু ওবায়েদ বলেন,  মোশাররফ মোটরসাইকেলে করে কলেজ থেকে বাড়ি ফিরছিলেন। তিনখুঁটির মোড়ে দুর্বৃত্তরা তাকে থামানোর চেষ্টা করে। তিনি মোটরসাইকেল না থামালে তারা গুলি ছোড়ে। মোশাররফ রাস্তায় পড়ে গেলে তারা তার মোটরসাইকেল নিয়ে চলে যায়। পরে স্থানীয়রা তাকে বাঘা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন বলে জানান ওসি। চিকিৎসকের বরাত দিয়ে তিনি বলেন, মোশাররফের গায়ে তিনটি গুলি লেগেছে। মোটরসাইকেল ছিনতাইকারীরা তাকে গুলি করে বলে পুলিশের প্রাথমিক ধারণার কথা জানিয়েছেন ওসি ওবায়েদ।
 
কুষ্টিয়ার ভেড়ামারার ট্রাকচালক সুজন আলী (২৫) রাজশাহী থেকে বাড়িতে ফিরছিলেন। তিনি তার গাড়িতে করে মোশারফকে ঘটনাস্থল থেকে তুলে বাঘা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসেন। সুজন আলী জানান, তিনি রাজশাহীতে মাল নামিয়ে ভেড়ামারায় ফিরে যাচ্ছিলেন। বাঘা থানার সীমানা পার হয়ে লালপুরের পুলিশ বক্সের সামনে গিয়ে দেখেন অনেক মানুষ সেখানে জটলা করে আছে। মাঝখানে একজন মানুষ পড়ে রয়েছেন। কেউ তাকে তুলে আনছেন না দেখে তিনি গাড়ি ঘুরিয়ে তাকে তুলে হাসপাতালে নিয়ে আসেন। তখন বেলা পৌনে একটার মতো বাজে। ট্রাকে তোলার সময় তিনি বেঁচে ছিলেন কি না, তা বুঝতে পারেননি।

মোশারফের সহকর্মী রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষক জহুরুল ইসলাম বলেন, দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে তিনি ও মোশাররফ হোসেন প্রায় একই সঙ্গে কলেজ থেকে বাড়ির উদ্দেশে বের হওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন। মোশারফকে রেখে তিনি কয়েক মিনিট আগে কলেজ থেকে বের হন। বাঘায় এসে তিনি খবর পান বাঘা থানার সীমান্ত থেকে লালপুরের দিকে প্রায় এক কিলোমিটার ভেতরে বাদলিবাড়ি গ্রামে পুলিশ বক্সের সামনে মোশারফকে গুলি করে দুর্বৃত্তরা তার মোটরসাইকেলটি নিয়ে গেছে।

বাঘা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্তব্যরত চিকিৎসক জহুরুল ইসলাম জানান, তার বাম বগলের নিচে গুলি লেগেছে। গুলির আঘাতেই তার মৃত্যু হয়েছে বলে তারা ধারণা করছেন।

মোহরকয়া ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ ইসমত আলী জানান, মোশাররফ হোসেন প্রতিদিনই মোটরসাইকেলে করে কলেজে আসা-যাওয়া করতেন। রাস্তায় কোনো সমস্যার কথা তিনি কখনো জানাননি। তিনি এ ঘটনায় দায়ী ব্যক্তিদের অবিলম্বে গ্রেপ্তারের দাবি জানান।

বাঘা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আলী মাহমুদ বলেন, ঘটনাস্থল বাঘা থানার সীমান্ত থেকে লালপুরের প্রায় এক কিলোমিটার ভেতরে; পুলিশ বক্সের সামনে।লালপুর থানার ওসি আবু ওবায়েদ বলেন, খবর পাওয়ার পরপরই ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। প্রাথমিক খোঁজখবরে জানা যায়, দুর্বৃত্তরা মোটরসাইকেল ছিনতাইয়ের উদ্দেশ্যেই ওই শিক্ষককে গুলি করছে। তবে অন্য কারণও থাকতে পারে। তদন্তের পর তা জানা যাবে।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
  • নির্বাচিত

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে