জনতার রোষানল থেকে শিক্ষিকাকে উদ্ধার

  রাণীনগর (নওগাঁ) প্রতিনিধি

১৭ আগস্ট ২০১৭, ১৬:৫৪ | অনলাইন সংস্করণ

নওগাঁর রাণীনগরে চকমনু সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকাকে স্থানীয় জনতার রোষানল থেকে উদ্ধার করেছে পুলিশ। স্কুল চলাকালীন সময়ে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে সহকারি শিক্ষকের সাথে বাকবিতন্ডা ও ধস্তাধস্তির এক পর্যায়ে প্রধান শিক্ষিকা কামড় দেয়। শিক্ষকের সাথে নেক্কারজনক আচরণ করার বিষয়টি ছড়িয়ে পড়লে স্কুলের ম্যানেজিং কমিটির সদস্যসহ গ্রামবাসিরা প্রায় ৩ ঘণ্টা শিক্ষিকাকে অবরুদ্ধ করে রাখে।

বিষয়টি উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে জানালে পরিস্থিতি সামাল দিতে পুলিশের সহযোগিতায় শিক্ষা অফিসের একাধিক কর্তা ব্যক্তিরা প্রধান শিক্ষিকার দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি প্রদান করা হবে- এমন আশ্বাস দেওয়ায় পরিস্থিতি শান্ত হলে ঘটনাস্থল থেকে তাকে উদ্ধার করা হয়।

এ ব্যাপারে একটি তদন্ত কমিটি গঠনসহ ওই শিক্ষিকাকে তিন দিনের নৈমিত্তিক ছুটিতে পাঠানো হয়েছে। তদন্ত রিপোর্ট হাতে পেলেই উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সিদ্ধান্তক্রমে শিক্ষিকার বিরুদ্ধে উপযুক্ত আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার জানান।

জানা গেছে, উপজেলার কাশিমপুর ইউপির চকমনু সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ২০১৫ সালে প্রধান শিক্ষিকা হিসেবে যোগদান করেন স্বপ্না রানী সাহা। তখন থেকেই তার সহকর্মীদের সাথে ছোটখাট নানা বিষয় নিয়ে দ্বন্দ্বে জড়াতেন তিনি। বিষয়গুলো নিয়ে পর্যায়ক্রমে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে জানানো হলে ওই প্রধান শিক্ষিকার বিরুদ্ধে রহস্যজনক কারণে শক্ত কোনো বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহণ না করায় দিনদিন তিনি আরো বেপরোয়া হয়ে পড়েন। গত ২৪ এপ্রিল ছাত্র-ছাত্রীদের পুরাতন পাঠ্যপুস্তক গোপনে বিক্রি করার অভিযোগে অন্যান্য শিক্ষকের সাথে তার ঝগড়া হলে স্বপ্না রাণী বাহির থেকে বেশ কয়েকজন মাস্তান নিয়ে এসে তার সহকর্মীদেরকে সরাসরি হুমকি প্রদান করে।

ঘটনাটি স্থানীয় শিক্ষা অফিস এবং থানা পর্যন্ত গড়ালেও তার বিরুদ্ধে দৃশ্যমান কোনো ব্যবস্থা নেয়া হয়নি। এছাড়াও তার বিরুদ্ধে আত্রাই উপজেলার সাহেবগঞ্জ মহল্লার বাসিন্দা হিসেবে ভুয়া ঠিকানা ব্যবহার করে ২০১০ সালে নারী কোটায় চাকরি নেওয়ার ঘটনা বিভিন্ন জাতীয় দৈনিক ও আঞ্চলিক দৈনিক পত্রিকায় প্রকাশিত হয় যা নিয়ে বিভাগীয় তদন্ত চলমান।

গত মঙ্গলবার দুপুরে স্কুলে হিসাব-নিকাশ চলাকালীন সময়ে স্বপ্না রানীর হাতে লিখিত পুরাতন বই বিক্রির রেজিষ্ট্রার খাতা সহকারি শিক্ষক জেকের আলীর নজরে পড়ে। তাৎক্ষনিকভাবে বই বিক্রির প্রতিবাদ করলে জেকের আলীর সাথে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে অন্যান্য শিক্ষকদের উপস্থিতিতে হিসাবের পাতাটি প্রধান শিক্ষিকা ছিড়লে সহকর্মীরা বাধা দেন। ধস্তাধস্তির এক পর্যায়ে শিক্ষক জেকের আলীর হাতে স্বপ্না রাণী কামড় দেন।

চকমনু সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা স্বপ্না রাণী সাহা জানান, আমি অসুস্থ। এখন কথা বলতে পারবো না।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
  • নির্বাচিত

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে