কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের দুই শিক্ষার্থী বহিষ্কার

প্রকাশ | ০৫ অক্টোবর ২০১৭, ২১:১১

কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি

কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়েল কম্পিউটার সাইন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং (সিএসএই) বিভাগের দুই শিক্ষার্থীর বিরুদ্ধে প্রশ্ন ও উত্তরপত্র চুরির অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় তাদের দুই বছরের জন্য শিক্ষা কার্যক্রম থেকে বহিষ্কার করেছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।

বিশ্ববিদ্যালয়ের ৬৭তম সিন্ডিকেট সভায় তাদের বহিষ্কার করা হয়। বহিষ্কৃত দুই শিক্ষার্থী হলেন- সিএসই ২০১৪-১৫ শিক্ষাবর্ষের সাখাওয়াত হোসেন সানি ও সিরাজুল ইসলাম মনির। বিশ্ববিদ্যালয় রেজিস্ট্রার মোঃ মজিবুর রহমান মজুমদার স্বাক্ষরিত এক অফিস আদেশ থেকে এই তথ্যটি জানা যায়।

এদিকে প্রশ্ন ও উত্তর পত্র চুরির সহযোগী নির্মল চন্দ্র দাসকে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করা হলেও বিশ্ববিদ্যালয় সংস্থাপন শাখায় কর্মরত আছেন তিনি। তবে এখন পর্যন্ত তার বিরুদ্ধে কোনো স্থায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে রেজিস্ট্রার মজিবুর রহমান মজুমদার বলেন, ‘তার বিরুদ্ধে আইনগতভাবে ব্যবস্থা নিয়ে নিয়ম অনুসারে সে যে শাস্তি পাবে সেটাই দেওয়া হবে। এই প্রক্রিয়াটি শুরু হয়েছে।’

উল্লেখ্য, গত ২০ মার্চ ২০১৫-১৬ শিক্ষাবর্ষের ‘ফিজিক্স-২’ কোর্সের চূড়ান্ত পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। এই পরীক্ষায় মান উন্নয়নের জন্য অংশ্রগ্রহণ করতে চাচ্ছিলেন শিক্ষার্থীদ্বয়। কিন্তু পরীক্ষার পূর্বেই দুই শিক্ষার্থী প্রশ্ন ও উত্তর পত্র চুরি করেন বিভাগের একজন কর্মচারি নির্মল চন্দ্র দাসের সহযোগীতায়। পরীক্ষার দিন তারা লিখিত খাতা নিয়ে পরীক্ষার হলে প্রবেশ করেন। ওই পরীক্ষার পরিদর্শক তাদের হাতেনাতে ধরে ফেলেন। তাদের ওই পরীক্ষাও বাতিল করা হয় এবং পরে সমাজ বিজ্ঞান অনুষদের ডিন অধ্যাপক জাকির ছায়াদউল্লাহ খানকে প্রধান করে তিন সদস্য বিশিষ্ট একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। এই তদন্ত প্রতিবেদনের প্রেক্ষিতেই দুই শিক্ষার্থীকে দুই বছরের জন্য বহিষ্কার করা হয়।