আসল পুলিশের কাছে ঘুষ চাইল ‘নকল পুলিশ’

  অনলাইন ডেস্ক

১৭ আগস্ট ২০১৭, ১৩:৪৫ | অনলাইন সংস্করণ

ভারতের পশ্চিমবঙ্গে আইপিএস অফিসার পরিচয় দিয়ে প্রতারণার অভিযোগে তন্ময় বণিক নামের এক বিশ বছরের যুবককে গ্রেপ্তার করেছে দেশটির পুলিশ। পুলিশের সঙ্গে কারসাজি করতে গিয়েই পুলিশের জালে ধরা পড়ে সে। সম্পূর্ণ ঘটনাটি তুলে ধরা হয়েছে কলকাতা পুলিশের অফিশিয়াল ফেসবুক পেজে।

জানা গেছে, কলকাতা পুলিশের রিজার্ভ ফোর্সের কনস্টেবল তমাল গোস্বামীর বাড়ি বালুরঘাটে। কিছুদিন আগেই তাঁর বাবার নার্ভজনিত সমস্যা ধরা পড়ে। তাঁর মা-ও সম্পূর্ণ সুস্থ নন। কলকাতায় থেকে বাবা-মা’র চিকিৎসা করানো সুবিধা হবে বলে শহরের মধ্যে একটি বাড়ির সন্ধানে ছিলেন তিনি।

এ সময়ে খানিকটা কাকতালীয় ভাবেই তমালের সঙ্গে ফেসবুকে পরিচয় হয় ঈশান বন্দ্যোপাধ্যায় নামে এক ব্যক্তির। ঈশানের প্রোফাইলে লেখা ছিল সে একজন আইপিএস অফিসার। প্রোফাইল পিকচারও সেই কথাই বলছিল। মেসেঞ্জারে কথাবার্তা শুরু হলে নিজেকে পশ্চিমবঙ্গ ক্যাডারের অফিসার হিসেবেও পরিচয় দেয় ঈশান। কথাবার্তা কিছুদিন গড়ানোর পর তমাল নিজের সমস্যার কথা জানান ঈশানকে। তিনি বলেন, কলকাতায় একটি বাড়ির সন্ধানে রয়েছেন কিছুদিন ধরেই। যেহেতু, ঈশান একজন সর্বভারতীয় সার্ভিসের অফিসার, তাই এই ব্যাপারে কিছু সাহায্য করতে পারবে কি না, তা জানতে চান তমাল।

এর উত্তরে ঈশান জানায়, কোয়ার্টারের জন্য অনেক দরখাস্ত ইতিমধ্যেই জমা রয়েছে, তবে কিছু টাকা অগ্রিম তার পিএ-কে দিলে, সে ক্ষমতাবলে ব্যবস্থা করে দেবে| এইখানেই প্রথম সন্দেহ হয় রিজার্ভ ফোর্সের কনস্টেবল তমালের। ঘটনাটি সাইবার সেলে জানান তিনি। খতিয়ে দেখতেই বেরিয়ে আসে চাঞ্চল্যকর তথ্য। ঈশান বন্দ্যোপাধ্যায় নামে কোনও আইপিএস অফিসার পশ্চিমবঙ্গে নেই।

জানা যায়, ঈশান বন্দ্যোপাধ্যায় নামটিও ভুয়া। তন্ময় বণিক নামের ওই যুবক, ইন্ডিয়ান রেভিনিউ সার্ভিসের অফিসার বিনয় জি. এম-এর লিঙ্কডিন প্রোফাইল থেকে ছবি ডাউনলোড করে সেই ছবি দিয়ে ভুয়া ফেসবুক অ্যাকাউন্ট খোলে। রহস্য জানার পরে টোপ দিয়ে তন্ময়কে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
  • নির্বাচিত

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে