নববর্ষে 'নিরাপদ' আনন্দে মেতে উঠুক শিশুরাও

  আয়েশা সিদ্দিকা

১৩ এপ্রিল ২০১৭, ১৫:১৫ | আপডেট : ১৩ এপ্রিল ২০১৭, ১৫:৩৪ | অনলাইন সংস্করণ

আগামীকাল শুক্রবার, পহেলা বৈশাখ। বাংলা সনের প্রথম দিন।এই দিনটি বাঙালি জাতি নববর্ষ হিসেবেই পালন করে। অতীতের ভুলত্রুটি ও ব্যর্থতার গ্লানি ভুলে নতুন করে সুখ-শান্তি ও সমৃদ্ধি কামনায় এদিন আনন্দঘন পরিবেশে মানুষ বরণ করে নেয় নতুন আরেকটি বছর। এদিনে দেশের সর্বত্র শুধু তরুণ-তরুণীদের মিলনমেলা বসে না, বাদ যান না বৃদ্ধরাও। এখানেই শেষ নয়, বৈশাখী আনন্দে বাবা-মায়ের সঙ্গে মেতে ওঠে শিশুরাও। তারা সব উৎসবেই নির্মল আনন্দ উপভোগ করে। তবে বিশেষ এই দিনে তারা প্রাপ্ত বয়স্কদের মতো নিজেদের যত্ন নিতে পারে না। তাই তাদের দেখভালের দায়িত্ব কিন্তু  আপনারই। আবার পহেলা বৈশাখের জনসমুদ্রে মিশে যাওয়ার আগেও শিশুদের নিরাপত্তার দায়িত্ব নিন। নতুবা আপনার বৈশাখের আনন্দটাই রূপ নেবে নিরানন্দে।  

বৈশাখের প্রথম দিনটিতে শিশুকে নিয়ে কোথাও বেড়াতে গেলে নিরাপত্তা নিশ্চিতে যা করবেন-

পোশাক

বৈশাখের প্রথম দিনটিতে বের হওয়ার আগে শিশুদের পোশাকের বিষয়টি অবশ্যই খেয়াল রাখুন। মেয়ে শিশুটি খুব ছোট হলে তাকে শাড়ি পড়িয়ে অস্বস্তিতে ফেলবেন না। সে যদি শাড়ি পড়ার আবদারও করে তাহলে তাকে ভালোভাবে বুঝিয়ে বলুন। দেখবেন, সে ঠিক আপনার কথা শুনবে। এদিন মেয়ে কিংবা ছেলে শিশু উভয়কেই ঢিলেঢালা, সুতির আরামদায়ক পোশাক পড়ানোর চেষ্টা করুন। এতে করে গরমে অসুস্থ হয়ে পড়ার হাত থেকে সে বাঁচতে পারবে।

কম জনবহুল জায়গায় যান

বাচ্চাকে নিয়ে কোথাও বেড়াতে যাওয়ার আগে সেখানে যাওয়ার পরিবহণ ব্যবস্থা ও পরিবেশ সম্পর্কে ভালোভাবে জেনে নিন। যদি যাতায়াত ব্যবস্থা ভালো না হয় তাহলে বাচ্চা সেখানে না নিয়ে যাওয়াই ভালো। এর পরিবর্তে আশেপাশের কোন ভালো এবং কম জনবহুল জায়গায় যান। এতে উৎসবের আনন্দ ভালোভাবে উপভোগ করতে পারবেন। একইসঙ্গে আপনার বাচ্চাও থাকবে সুরক্ষিত।

বিশ্রাম নিন

বাচ্চাকে নিয়ে খুব বেশি হাঁটাহাটি করবেন না। মনে রাখবেন, ছোটদের পরিশ্রম করার ক্ষমতা আমাদের সমান নয়। তাই ঘুরে বেড়ানোর ফাঁকে সে যেন পর্যাপ্ত বিশ্রাম নিতে পারে সে ব্যবস্থা নিশ্চিত করুন।

চোখের আড়াল করবেন না

পহেলা বৈশাখে নগরীর প্রায় প্রত্যেকটি স্থানেই অনেক ভিড় থাকে। তাই আপনার শিশু যাতে কোনক্রমেই চোখের আড়াল না হয় সেদিকে খেয়াল রাখুন। কেননা এই ভিড়ে শিশুর হারিয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকে। মনে রাখবেন, একটি দুর্ঘটনাই শিশুটির ও পুরো পরিবারের ভবিষ্যত অন্ধকারে ডুবিয়ে দেওয়ার জন্য যথেষ্ট।

ফার্স্ট এইড বক্স

শিশু যাতে আনন্দ করতে গিয়ে কোন ব্যাথা বা আঘাত না পায় সেদিকেও সজাগ দৃষ্টি রাখুন। এজন্য বেড়াতে বের হলে অবশ্যই সঙ্গে ফার্স্ট এইড বক্স, পর্যাপ্ত পানি ও ছাতা রাখুন।

স্বল্প পরিচিতদের সঙ্গে শিশুকে পাঠাবেন না

স্বল্প পরিচিত কোন ব্যক্তি কিংবা শিশু যার সঙ্গ পছন্দ করে না এমন কোন ব্যক্তির সঙ্গে শিশুকে কোথাও বেড়াতে পাঠাবেন না। এতে শিশুর নিরাপত্তা হুমকির মুখ পড়ে। কেবল আপনারা দুজন ছাড়া ছোট সোনামনিকে মামা, চাচা, মামাতো ভাই, খালাতো ভাইদের সঙ্গেও বেড়াতে পাঠাবেন না। এতে আপনার শিশু থাকবে একেবারেই নিরাপদ।

 

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
  • নির্বাচিত

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে