কাঁঠাল বেশি খেলেও ওজন বাড়বে না

  অনলাইন ডেস্ক

১৯ জুন ২০১৭, ১১:২৯ | আপডেট : ১৯ জুন ২০১৭, ১১:৩৭ | অনলাইন সংস্করণ

ফলের রাজা আম হলেও পুষ্টিগুণে ভরপুর সব ফলের রাজা কিন্তু কাঁঠাল। এটি একটি সুস্বাদু রসালো ফল। স্বাধ ও গন্ধেও অতুলনীয় এই ফলটি। এতে বিটা ক্যারোটিন, ভিটামিন এ, সি, বি-১,  বি-২, পটাশিয়াম, ক্যালসিয়াম, ম্যাগনেসিয়ামসহ নানা রকমের পুষ্টি ও খনিজ উপাদান রয়েছে। এগুলো আমাদের শরীরকে সুস্থ ও সবল রাখার পাশাপাশি ভিটামিনের চাহিদাও পূরণ করে। শুধু দাঁত ও হাড় সুস্থ রাখতে নয়, বরং ত্বক সুন্দর করতেও সাহায্য করে এই কাঁঠাল। আবার বেশি পরিমাণে কাঁঠাল খেলে ওজনটাও থাকে আপনার নিয়ন্ত্রণে।

বাংলাদেশের জাতীয় ফল কাঁঠাল। ফলটি খেতে যেমন সুস্বাদু তেমনি রয়েছে এর স্বাস্থ্য উপকারিতাও। জেনে নিন কাঁঠালের কিছু উপকারিতার কথা-

রোগ-প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়

কাঁঠালে পর্যাপ্ত পরিমাণে ভিটামিন সি এর মতো অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট রয়েছে, যা সর্দি-কাশি, জ্বরের মতো সাধারণ নানা রোগকে সহজেই প্রতিহত করে। এই খাবারটি নিয়মিত খেলে শরীরকে সুস্থ রাখা সম্ভব হয়।

শক্তি বাড়ায়

এতে শর্করা, ক্যালোরি, ফ্রুক্টোজ ও সুক্রোজ রয়েছে, যা দ্রুত শক্তি বাড়ায়। একই সঙ্গে এতে কোন কোলেস্টেরোল জাতীয় উপাদান নেই। কাজেই এটি যে অনেক স্বাস্থ্যকর একটি ফল তা আর বলার অপেক্ষা রাখে না।

ওজন বাড়ে না

কাঁঠালে চর্বির পরিমাণ খুব কম থাকায় এটি বেশি খেলেও ওজন বাড়বে না। তাই ইচ্ছামতো এই ফলটি খেতে কোন বাধা নেই।

স্ট্রোক ও হার্ট অ্যাটাকের ঝুঁকি কমায়

কাঁঠালে পর্যাপ্ত পরিমাণে পটাসিয়াম রয়েছে, যা উচ্চ রক্তচাপ কমাতে সাহায্য করে। এর ফলে স্ট্রোক ও হার্ট অ্যাটাকে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি অনেকাংশে হ্রাস পায়।

হজমশক্তি বাড়ায়

কাঁঠালে আঁশ থাকায় তা হজম শক্তি বাড়াতে সাহায্য করে। এছাড়া কোষ্ঠকাঠিন্য প্রতিহত করতেও ভূমিকা রাখে খাবারটি। কাজেই হজম শক্তি বাড়াতে নিয়মিত কাঁঠাল খান।

মলাশয়ের ক্যান্সার প্রতিহত করে

কাঁঠালে বিদ্যমান ডায়েটারি ফ্যাট মলাশয় থেকে বিষাক্ত উপাদানসমূহ পরিষ্কার করে। ফলে মলাশয়ের ওপর আর বিষাক্ত উপাদানসমূহের ক্ষতিকর প্রভাব পড়ে না। এতে করে মলাশয়ের ক্যান্সারও প্রতিহত হয়।

দৃষ্টিশক্তি বাড়ায়

দৃষ্টিশক্তি বাড়াতে কাঁঠাল খাওয়ার কোন বিকল্প নেই। এতে পর্যাপ্ত পরিমাণ ভিটামিন এ রয়েছে, যা চোখের জন্য অপরিহার্য পুষ্টি উপাদান। তাই দৃষ্টিশক্তি ভালো রাখতে নিয়মিত কাঁঠাল খান। এছাড়া ত্বকের বলিরেখা বা ভাঁজ প্রতিহত করতেও কম ভূমিকা রাখে না এই কাঁঠাল।

এগুলো ছাড়াও কাঁঠালের আরও নানা উপকারিতা রয়েছে। এগুলো হলো-

# চর্বির পরিমাণ খুব কম থাকায় কাঁঠাল বেশি খেলেও ওজন বাড়বে না।

# কাঁঠালে ম্যাগনেসিয়াম ও ক্যালসিয়াম থাকায় তা হাড়ের গঠন ও বৃদ্ধিতে সাহায্য করে ।

# মস্তিষ্ককে সুরক্ষা দিতেও অনেক বেশি কার্যকরী কাঁঠাল।

কাঁঠালের মধ্যে যখন এত পৃষ্টিগুণ সমৃদ্ধ উপাদান রয়েছে তখন আর দেরি কেন? নিয়মিত কাঁঠাল খান, সুস্থ থাকুন।

 

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
  • নির্বাচিত

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে