advertisement
advertisement

ক্রাইস্টচার্চে টাইগারদের আশা

ক্রীড়া প্রতিবেদক
১৫ মার্চ ২০১৯ ০০:০০ | আপডেট: ১৫ মার্চ ২০১৯ ০১:১১

নিউজিল্যান্ড সফর আরও একবার হতাশ করেছে বাংলাদেশকে। মাশরাফির নেতৃত্বে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে কিউইদের কাছে ধবলধোলাই হয়েছে। টেস্ট সিরিজেও বিবর্ণ টাইগাররা। এক ম্যাচ বাকি থাকতেই সিরিজ জয় নিশ্চিত করে স্বাগতিকরা।

ক্রাইস্টচার্চে আগামীকাল থেকে শুরু হচ্ছে সিরিজের তৃতীয় ও শেষ টেস্ট ম্যাচ। নিউজিল্যান্ডের চাওয়াÑ ওয়ানডের মতো টেস্টেও ৩-০ তে সিরিজ জিতে নেওয়া। অন্যদিকে মান বাঁচাতে মরিয়া বাংলাদেশ। অন্তত সিরিজের শেষ টেস্ট ড্র করতে পারলে সেটাই হবে টাইগারদের বড় অর্জন। মাহমুদউল্লাহরা চাইছেন, জিততে না পারলেও ক্রাইস্টচার্চ টেস্ট ড্র করতে। সাকিব আল হাসানের শেষ টেস্টে খেলার ক্ষীণ সম্ভাবনা দেখা দিয়েছিল।

তবে শেষমেশ তিনি খেলছেন না। সাকিবের অভাবটা হাড়ে হাড়ে টের পাচ্ছে বাংলাদেশ। তার অনুপস্থিতিতে টেস্ট দলের নেতৃত্ব দিচ্ছেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। ভারপ্রাপ্ত এ অধিনায়ক হতাশ। বিশেষ করে ব্যাটসম্যানদের পারফরম্যান্সে তুষ্ট নন তিনি। ওয়েলিংটন টেস্ট হারের পর তো সরাসরি বলে দিয়েছেন, ব্যাটসম্যানদের আরও দায়িত্ব নিতে হবে। প্রথম টেস্টে তামিম, সৌম্য ও মাহমুদউল্লাহ সেঞ্চুরি করেছিলেন।

দ্বিতীয় টেস্টে প্রথম ইনিংসে তামিম ও দ্বিতীয় ইনিংসে মাহমুদউল্লাহ ফিফটি করেন। এ ছাড়া কোনো ব্যাটসম্যানই ফিফটি রানের ইনিংস খেলতে পারেননি। নিউজিল্যান্ডের পেসারদের শর্ট বলের কাছে অসহায় আত্মসমর্পণ করেছেন।

হ্যামিল্টনের পর ওয়েলিংটনেও ইনিংস ব্যবধানে হেরেছে সফরকারীরা। ক্রাইস্টচার্চে সফরের শেষ টেস্ট খেলবে বাংলাদেশ। এখানে টাইগারদের কঠিন পরীক্ষাই দিতে হবে। নিল ওয়াগনার, ট্রেন্ট বোল্টরা আরও একবার শর্ট বলে পরাস্ত করতে চাইবেন তামিম, সৌম্য, মাহমুদউল্লাহদের। বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানরা কতক্ষণ লড়াই চালিয়ে যেতে পারেন, সেটাই দেখার অপেক্ষা। চোটের কারণে প্রথম দুই টেস্টে খেলা হয়নি মুশফিকুর রহিমের।

যতটুকু জানা গেছে, তাতে শেষ টেস্টে বাংলাদেশের অভিজ্ঞ এ ব্যাটসম্যানের খেলার সম্ভাবনা উজ্জ্বল। মুশফিক খেললে বাংলাদেশের ব্যাটিংয়ের শক্তি আরও বাড়বে।