advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

অপচিকিৎসায় শ্রবণশক্তি হারাল শিশু

শরীয়তপুর প্রতিনিধি
২২ মার্চ ২০১৯ ০০:০০ | আপডেট: ২১ মার্চ ২০১৯ ২৩:৪৫
advertisement

শরীয়তপুরে ভুল চিকিৎসায় তিন বছরের এক শিশুর কান নষ্ট করে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে এক চিকিৎসকের বিরুদ্ধে। গত মঙ্গলবার জেলা শহরের হাজি শরীয়তউল্লাহ জেনারেল হাসপাতাল অ্যান্ড ডায়াবেটিক সেন্টারে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় গত বুধবার শরীয়তপুর আদালতে মামলা হয়। শিশুটির নাম তাসমিয়া। সে সদর উপজেলার তুলাসার এলাকার মো. সানাল মিয়ার মেয়ে।

মামলা সূত্রে জানা যায়, গত রবিবার তাসমিয়া বাসায় শিমের বিচি নিয়ে খেলছিল। হঠাৎ একটি বিচি তার ডান কানে ঢুকে যায়। গত মঙ্গলবার তাসমিয়াকে শরীয়তপুর সদর হাসপাতালের মেডিক্যাল অফিসার (নাক, কান ও গলা বিশেষজ্ঞ এবং সার্জন) ডা. মিজানুর রহমানের কাছে নিয়ে যাওয়া হয়। তিনি শিশুটিকে তার প্রাইভেট চেম্বার হাজি শরীয়তউল্লাহ জেনারেল হাসপাতাল অ্যান্ড ডায়াবেটিক সেন্টারে নিয়ে যেতে বলেন। সেখানে লোহার সরু লম্বা শলাকা ব্যবহার করে কানের ভেতর থেকে শিমের বিচি বের করার চেষ্টা করেন ডাক্তার। এতে শিশুটির কানের পর্দা ও মাংসপি- ছিঁড়ে যায়। কান দিয়ে রক্তক্ষরণ শুরু হলে যন্ত্রণায় অস্থির হয়ে ওঠে শিশুটি। উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে ঢাকা ইবনে সিনা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানকার চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, অপচিকিৎসার কারণে তাসমিয়া ডান কানের শ্রবণশক্তি হারিয়ে ফেলেছে।

এ ব্যাপারে ডা. মিজানুর রহমান বলেন, কোনো ডাক্তার রোগীর ক্ষতি চায় না। আমার বিরুদ্ধে এটা মিথ্যা অভিযোগ। এ বিষয়ে শরীয়তপুর সদর হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. মো. আব্দুল্লাহ বলেন, এ বিষয়ে অভিযোগ পাইনি। অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

advertisement