advertisement
advertisement
Azuba
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

নিউজিল্যান্ডে রক্তাক্ত দুই মসজিদ
জুমার নামাজে মানবতার জয়গান

আমাদের সময় ডেস্ক
২৩ মার্চ ২০১৯ ০০:০০ | আপডেট: ২৩ মার্চ ২০১৯ ০০:২৬
advertisement

এক সপ্তাহ আগেই এক বর্ণবিদ্বেষী কট্টরপন্থির হামলায় ৫০ জন নিরীহ মুসলমানের রক্তে রঞ্জিত হয়েছিল নিউজিল্যান্ডের শান্তির শহরখ্যাত ক্রাইস্টচার্চের দুই মসজিদ। এতগুলো নিরপরাধ মানুষের জীবনহানির শোক এখনো কাটিয়ে উঠতে পারেনি ওশেনিয়া অঞ্চলের এই দ্বীপদেশটি। এর মধ্যেই ক্রাইস্টচার্চের সেই আল নুর ও লিনউড মসজিদ ধুয়েমুছে পরিচ্ছন্ন করা হয়েছে।

হামলার পর এই প্রথম উভয় মসজিদেই গতকাল শুক্রবার অনুষ্ঠিত হয়েছে জুমার নামাজ। যাতে নিউজিল্যান্ডে বসবাসরত মুসলমানরা ছাড়াও সমবেত হয়েছিলেন অন্যান্য ধর্মের বিপুলসংখ্যক মানুষ। মুসলমানদের প্রতি সংহতি জানিয়ে অন্য ধর্মের অনেক নারী উপস্থিত হয়েছিলেন মাথা ঢেকে কিংবা হিজাব পরে। নামাজের সময় মুসল্লিরা যখন নিহত ও আহতদের জন্য দোয়া কামনায় হাত তুলেছিলেন আল্লাহর দরবারে, তখন অন্য ধর্মের মানুষরা পাশের রাস্তা ও পার্কে দাঁড়িয়েছিলেন নীরব হয়ে।

এ সময় স্থানীয় সময় দুপুর দেড়টায় আল নুর মসজিদ থেকে দেওয়া আজান ও জুমার নামাজ নিউজিল্যান্ডের রাষ্ট্রীয় টেলিভিশন ও রেডিওতে সরাসরি সম্প্রচার করা হয়। সব ধর্মের মানুষের জন্য খুলে দেওয়া হয় দেশের অন্যান্য মসজিদও। একই সঙ্গে এদিন নিউজিল্যান্ডজুড়ে পালন করা হয় ২ মিনিটের রাষ্ট্রীয় শোক। নিউজিল্যান্ড হেরাল্ডসহ বিভিন্ন আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম জানায়, গতকাল মূলত ক্রাইস্টচার্চের হ্যাগলি পার্কমুখী সড়ক ডিনস অ্যাভিনিউয়ের আল নুর মসজিদকে ঘিরেই ছিল মানুষের ঢল।

কারণ গত ১৫ মার্চ এ মসজিদেই প্রথমে হামলা চালিয়ে ৪৩ মুসলমানকে গুলি করে মেরেছিল ব্রেনটন ট্যারেন্ট নামে সেই উগ্রপন্থি। হামলার পর এতদিন কিছু সংস্কারের পর গতকাল মসজিদটি নামাজের জন্য উন্মুক্ত করে দেওয়া হয়। কড়া নিরাপত্তার মধ্যে এ মসজিদে এদিন জুমার নামাজ অনুষ্ঠিত হয়। এ সময় অন্যান্য ধর্মের বিপুলসংখ্যক মানুষ মুসলমানদের সঙ্গে সংহতি জানিয়ে পার্শ¦বর্তী হ্যাগলি পার্ক ও রাস্তায় অবস্থান নেন। সেখানে কালো ওড়না দিয়ে মাথা ঢেকে হাজির হয়েছিলেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী জাসিন্ডা আরডার্নও।

নামাজের পর মহানবীর (স) বাণী উল্লেখ করে সমবেত জনতার উদ্দেশে তিনি বলেন, ‘মুহম্মদ (স) বলেছেন, বিশ্ববাসী পারস্পরিক ভালোবাসা ও সহানুভূতি দিয়ে একটি শরীরের মতো থাকবে। যখন শরীরের কোনো অঙ্গে ব্যথা হয়, তখন পুরো শরীরে ব্যথা হয়। আপনাদের সঙ্গে পুরো নিউজিল্যান্ডই ব্যথিত। আমরা সবাই এক।’ এ সময় তিনি নিউজিল্যান্ডের সব মানুষকে সন্ত্রাস ও উগ্রবাদের বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানান। আল নুর মসজিদে নামাজ পরিচালনাকারী ইমাম গামাল ফৌদা বলেন, ওই বন্দুকধারী এখানে হামলা চালিয়ে লাখ লাখ মানুষের হৃদয় ভেঙে দিয়েছে। আজ সেই একই জায়গা থেকে আমি শুধু ভালোবাসাই দেখতে পাচ্ছি। আমাদের হৃদয় ভেঙে গেছে ঠিক, কিন্তু আমরা ভেঙে পড়িনি। আমরা জীবিত ও এক। আমরা কাউকেই বিভক্তি তৈরি করতে দেব না। আপনাদের ভালোবাসার মানুষদের হত্যা বিফলে যায়নি।

তাদের রক্ত দিয়ে আশার বীজে পানি দেওয়া হয়েছে। আল নুর মসজিদে এদিন জুমার নামাজে অংশ নিয়েছেন নিউজিল্যান্ডের বিখ্যাত মুসলিম রাগবি তারকা সনি বিল উইলিয়ামসও। পরে সমবেত জনতার উদ্দেশে তিনি বলেন, একজন গর্বিত মুসলিম ছাড়াও আমি নিউজিল্যান্ডের নাগরিক। এখানকার মানুষ ও নিউজিল্যান্ডের রাগবি দল মুসলিমদের যে সমর্থন দিয়েছে তার জন্য সবাইকে ধন্যবাদ। এদিকে আজ শনিবার ক্রাইস্টচার্চে ‘মার্চ ফর লাভ’ নামে একটি সমাবেশের আয়োজন করা হয়েছে। এতে দেশটির প্রধানমন্ত্রী জাসিন্ডা আরডার্ন যোগ দেবেন। সমাবেশে কয়েক হাজার মানুষ অংশ নেবেন বলে আশা করা হচ্ছে। গত ১৫ মার্চ ক্রাইস্টচার্চের দুই মসজিদে কট্টরপন্থি অস্ট্রেলিয়ান ব্রেনটন ট্যারেন্টের হামলায় অন্তত ৫০ জন নিহত ও বহু মানুষ আহত হন। এ হামলায় আহত ২৭ জন এখনো হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

নিহতদের মধ্যে পাঁচজন ও আহত দুই বাংলাদেশি রয়েছেন। নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রীকে হত্যার হুমকি ক্রাইস্টচার্চ হামলার পর ত্বরিত নানা পদক্ষেপ নেওয়া এবং উগ্রপন্থার বিরুদ্ধে কথা বলে বিশ্বজুড়ে এখন প্রশংসিত হচ্ছেন নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী জাসিন্ডা আরডার্ন। এর মধ্যেই এবার তাকেও হত্যার হুমকি দেওয়া হয়েছে। জাসিন্ডাকে উদ্দেশ করে এক টুইটার পোস্টে এ হুমকি দেওয়া হয়। পোস্টে একটি বন্দুকের ছবি যুক্ত করে লেখা হয়েছে, ‘ইউ আর নেক্সট’ বা ‘পরবর্তী টার্গেট তুমি’। দুদিন আগে তাকে এ বার্তা পাঠানো হয় বলে জানিয়েছেন জাসিন্ডা। একইভাবে ওই অ্যাকাউন্ট থেকে নিউজিল্যান্ড পুলিশের ওপরও হামলার হুমকি দেওয়া হয়। নিউজিল্যান্ড হেরাল্ড জানিয়েছে, যে অ্যাকাউন্ট থেকে এ বার্তা পাঠানো হয়েছে তা গতকাল বিকাল ৪টায় বন্ধ করে দেয় কর্তৃপক্ষ। বেশ কয়েকজন ওই পোস্টের বিরুদ্ধে রিপোর্ট করায় এরই মধ্যে সেই টুইটার অ্যাকাউন্ট ব্লক হয়ে গেছে।

ধারণা করা হচ্ছে, অ্যাকাউন্ট বন্ধ হওয়ার ৪৮ ঘণ্টারও বেশি সময় আগে এটি পোস্ট করা হয়েছিল। সেই অ্যাকাউন্টে ইসলামবিদ্বেষী নানা পোস্ট ও ছবি পাওয়া যায়। অ্যাকাউন্টধারী নিজেকে শ্বেতাঙ্গ আধিপত্যবাদী হিসেবে দাবি করেছে। এ বিষয়ে এক বিবৃতিতে নিউজিল্যান্ড পুলিশের মুখপাত্র বলেন, টুইটারে প্রধানমন্ত্রীকে যে হুমকি দেওয়া হয়েছে, সে বিষয়ে আমরা সতর্ক আছি। বিষয়টি তদন্ত করা হচ্ছে। ইস্তানবুলে ওআইসির জরুরি বৈঠক ক্রাইস্টচার্চ হামলার নিন্দা জানিয়ে তুরস্কের ইস্তানবুলে গতকাল জরুরি সন্ত্রাসবিরোধী বৈঠক করেছে ইসলামী দেশগুলোর সহযোগী সংস্থা ওআইসি। ওআইসির নির্বাহী কমিটির বর্তমান চেয়ারপারসন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোগানের আহ্বানে এই বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। বাংলাদেশের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সূত্র জানায়, বৈঠকে বাংলাদেশ প্রতিনিধি দলের নেতৃত্ব দিচ্ছেন ভূমিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী।

তার সঙ্গে আরও আছেন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মহাপরিচালক (আন্তর্জাতিক সংস্থা) এএফএম গাউসুল আজম সরকার, তুরস্কে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত এম আল্লামা সিদ্দিকী, সৌদি আরবে নিযুক্ত বাংলাদেশ দূতাবাসের উপমিশনপ্রধান এবং ওআইসিতে বাংলাদেশের উপ-স্থায়ী প্রতিনিধি ড. মো. নজরুল ইসলাম এবং ইস্তানবুলে বাংলাদেশের কনসাল জেনারেল মোহাম্মদ মনিরুল ইসলাম।

advertisement