advertisement
advertisement

নুসরাতের সহপাঠী পপি গ্রেপ্তার

নিজস্ব প্রতিবেদক
১৫ এপ্রিল ২০১৯ ১৭:৩৩ | আপডেট: ১৫ এপ্রিল ২০১৯ ২১:০৮

ফেনীর সোনাগাজীর মাদ্রাসা শিক্ষার্থী নুসরাত জাহান রাফিকে আগুনে পুড়িয়ে হত্যা চেষ্টায় সরাসরি অংশ নেয়া তার সহপাঠী উম্মে সুলতানা পপি ওরফে শম্পাকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

আজ সোমবার দুপুরে পপিকে ফেনী থেকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)। ফেনী পিবিআই এর অ্যাডিশনাল এসপি মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

নুসরাতের মতো পপিও এবার সোনাগাজী ইসলামিয়া ফাজিল মাদ্রাসা থেকে আলিম পরীক্ষা দিচ্ছিলেন। ঘটনার দিন পপি নুসরাতের কাছে এসে খবর দেয় ছাদে তার বান্ধবী নিশাতকে মারধর করা হচ্ছে। এই খবর পেয়েই নুসরাত দ্রুত ছাদে ছুটে যায় এবং সেখানে আগে থেকে ওঁৎ পেতে থাকা অধ্যক্ষ সিরাজ উদ দৌলার অনুসারীরা নুসরাতের ওপর হামলা করে, তার গায়ে আগুন ধরিয়ে দেয়। এ সময় হামলাকারীরা পপিকেই শম্পা নামে ডেকেছিল।

উল্লেখ্য, গত ৬ এপ্রিল ফেনীর মাদ্রাসাছাত্রী নুসরাত জাহান রাফি পরীক্ষা দিতে গেলে দুর্বৃত্তরা তার গায়ে আগুন লাগিয়ে দেয়। পরে গুরুতর অবস্থায় ওইদিন রাতে তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হলে সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

এর আগে গত ২৭ মার্চ ওই মাদ্রাসার অধ্যক্ষ সিরাজ উদ দৌলার বিরুদ্ধে শ্লীলতাহানির অভিযোগে মামলা করেন নুসরাতের মা। গত ৭ এপ্রিল (রোববার) নুসরাত চিকিৎসকদের কাছে দেওয়া শেষ জবানবন্দিতে বলেছিলেন, নেকাব, বোরকা ও হাতমোজাপরা চারজন তার গায়ে আগুন ধরিয়ে দেন। ওই চারজনের মধ্যে একজনের নাম শম্পা।