advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

কৃষিপণ্য আমদানি রপ্তানিতে আগ্রহী সেøাভানিয়া

১৬ এপ্রিল ২০১৯ ০২:০৩
আপডেট: ১৬ এপ্রিল ২০১৯ ০২:০৩
advertisement
advertisement

বাংলাদেশের সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় ও অর্থনৈতিক সম্পর্ক বৃদ্ধিতে গভীর আগ্রহ প্রকাশ করেছে মধ্য ইউরোপের রাষ্ট্র সেøাভানিয়া। শুধু তা-ই নয়, বাণিজ্য সম্পর্ক জোরদার করতে দেশটির ব্যবসায়ীদের বাংলাদেশে বিনিয়োগেরও পরামর্শ দেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন ঢাকায় নিযুক্ত সেøাভানিয়ার রাষ্ট্রদূত জোযেফ ড্রোফেনিক। গতকাল কৃষিমন্ত্রী ড. মো. আব্দুর রাজ্জাকের সঙ্গে মন্ত্রণালয়ের অফিসকক্ষে সাক্ষাৎকালে তিনি এ আগ্রহের কথা জানান।
জোযেফ ড্রোফেনিক বলেন, ‘বাংলাদেশ থেকে সেøাভানিয়া তৈরি পোশাক, শাকসবজি ও ফল আমদানি করতে পারে। তেমনি সেøাভানিয়া থেকে বাংলাদেশ আনতে পারে কৃষি যন্ত্রপাতি।’ এ সময় খাদ্য উৎপাদনে বাংলাদেশের স্বনির্ভরতা অর্জনসহ আর্থসামাজিক ক্ষেত্রে সরকার গৃহীত বিভিন্ন উন্নয়ন কার্যক্রম এবং নানা অর্জন সম্পর্কে রাষ্ট্রদূতকে অবহিত করেন কৃষিমন্ত্রী।
আব্দুর রাজ্জাক বলেন, ‘দেশ এখন এগিয়ে চলছে উন্নয়নের পথে। বর্তমান সরকার উন্নয়নের পথ মসৃণে সব ধরনের পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। একশটি বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চল নির্মাণ হচ্ছে, যেখানে ইতোমধ্যে অনেক দেশের বিনিয়োগকারীরা শিল্প প্রতিষ্ঠান স্থাপনসহ বিনিয়োগে আগ্রহী। এ ছাড়া দেশে এখন কোনো বিদ্যুৎ ও গ্যাসের সমস্যা নেই। যে কোনো শিল্প কলকারখানা স্থাপনের জন্য বাংলাদেশ এখন আদর্শ স্থান।’ এ দেশ থেকে সেøাভানিয়া সিরমিক, উচ্চমানসম্পন্ন ওষুধসহ কৃষিপণ্য আমদানি করতে পারে বলেও জানান মন্ত্রী।
১৯৯৬ সালে সেøাভানিয়ার সঙ্গে বাংলাদেশের কূটনৈতিক সম্পর্ক তৈরি হলেও দুদেশের সম্পর্ক বেশ পুরনো। ১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধের পর যুদ্ধাহত অনেক মুক্তিযোদ্ধা চিকিৎসার জন্য তৎকালীন যুগোসøাভিয়ার অন্তর্ভুক্ত দেশটিতে গিয়েছিলেন।
এদিকে বাংলা নববর্ষ ১৪২৬ উপলক্ষে গতকাল মন্ত্রণালয়ের সর্বস্তরের কর্মকর্তা-কর্মচারীর সঙ্গে শুভেচ্ছাবিনিময় করেন কৃষিমন্ত্রী। তিনি বলেন, ‘বাঙালি জাতীয়তাবাদ ও মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় উদ্বুদ্ধ হয়ে ঐক্যবদ্ধভাবে দেশ ও জাতির কল্যাণে আবহমানকালের সর্বজনীন ও অসাম্প্রদায়িক এ উৎসব ভূমিকা রেখে আসছে। তাই বাংলা বর্ষবরণ কেবল আনুষ্ঠানিকতানির্ভর কোনো উৎসব নয়Ñ এই দিনটি বাঙালির ধর্মনিরপেক্ষতা, অসাম্প্রদায়িক চেতনা ও শেকড় সন্ধানের পরিচয়ও বহন করে।’
কৃষি সচিব মো. নাসিরুজ্জামান, মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব, যুগ্ম সচিব, উপসচিবসহ সব স্তরের কর্মকর্তা-কর্মচারী এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

 

advertisement