advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

নুসরাত হত্যায় আরেক তরুণ গ্রেপ্তার

ফেনী প্রতিনিধি
১৬ এপ্রিল ২০১৯ ১০:০৪ | আপডেট: ১৬ এপ্রিল ২০১৯ ১২:৪৭

ফেনীর সোনাগাজীতে আগুনে পুড়িয়ে মাদ্রাসাছাত্রী নুসরাত জাহান হত্যার ঘটনায় আরও মো. শামীম (১৯) নামে এক তরুণকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)।

গতকাল সোমবার রাতে সোনাগাজী পৌরসভার তুলাতলী থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। মো. শামীম সোনাগাজী ইসলামিয়া ফাজিল মাদ্রাসার আলিম পরীক্ষার্থী।

বিষয়টি নিশ্চিত করে পিবিআইয়ের পরিদর্শক শাহ আলম জানান, নুসরাতের গায়ে আগুন ধরিয়ে দেওয়ার সময় শামীম প্রশাসনিক ভবনের নিচতলায় পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণের দায়িত্বে ছিলেন।

পিবিআইয়ের পরিদর্শক বলেন, গত রোববার মামলার অন্যতম দুই আসামি শাহাদাত হোসেন ওরফে শামীম ও নুর উদ্দিন আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন। তাদের দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে গতকাল অভিযান চালিয়ে মো. শামীমকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

এদিকে নুসরাত হত্যার ঘটনায় এই মামলায় আটজনের নাম উল্লেখ করে এবং অজ্ঞাতনামা আরও চার-পাঁচজনকে আসামি করা হয়েছে। এখন পর্যন্ত এ ঘটনায় অধ্যক্ষ সিরাজ উদদৌলাসহ ১৪ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এর মধ্যে এজাহারভুক্ত সাতজন আসামি রয়েছেন।

নুসরাত হত্যার ঘটনায় সরাসরি অংশ নেওয়া আরেক নারী কামরুন্নাহার ওরফে মণিকে গ্রেপ্তারের কথা শোনা গেলেও সেটাকে গুজব বলে উড়িয়ে দেন তদন্ত কর্মকর্তা পরিদর্শক মো. শাহ আলম। হত্যাকাণ্ডে সরাসরি অংশ নেওয়া পাঁচজনের মধ্যে চারজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে বলে জানান তিনি।

উল্লেখ্য, গত ৬ এপ্রিল ফেনীর মাদ্রাসাছাত্রী নুসরাত জাহান আলিম পরীক্ষা দিতে গেলে দুর্বৃত্তরা তার গায়ে আগুন লাগিয়ে দেয়। পরে গুরুতর দগ্ধ নুসরাতকে ওইদিন রাতে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়। ১০ এপ্রিল রাত সাড়ে নয়টার দিকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে নুসরাত মারা যান।

এর আগে গত ২৭ মার্চ ওই মাদ্রাসার অধ্যক্ষ সিরাজ উদ দৌলার বিরুদ্ধে শ্লীলতাহানির অভিযোগে মামলা করেন নুসরাতের মা।