advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

কালোটাকা বিদেশি কথার লড়াইয়ে উত্তপ্ত রাজনীতি

আমাদের সময় ডেস‹
১৮ এপ্রিল ২০১৯ ০০:০০ | আপডেট: ১৮ এপ্রিল ২০১৯ ০৯:০৭

ভারতের সপ্তদশ লোকসভা নির্বাচনে আজ বৃহস্পতিবার দ্বিতীয় পর্বের ভোটগ্রহণ করা হবে। এই ধাপে ১৩ রাজ্যের মোট ৭৯ আসনে ভোট হবে। ফলে গত ১১ এপ্রিল প্রথম ধাপের নির্বাচনে সহিংসতার কথা মাথায় রেখে এবার ভোটকেন্দ্রগুলোর নিরাপত্তা আরও বাড়ানো হয়েছে। দেশটির নির্বাচন কমিশন বলছে, দ্বিতীয় পর্বের ভোটের জন্য তারা সম্পূর্ণ প্রস্তুত।

কিন্তু নিরাপত্তা আশঙ্কা উড়িয়ে দিতে পারছেন না তারা। কারণ এরই মধ্যে পশ্চিমবঙ্গে দুই বাংলাদেশি অভিনেতার তৃণমূলের হয়ে প্রচার চালানো, বিভিন্ন রাজ্যে বিপুল কালোটাকা উদ্ধার ও ক্ষমতাসীন বিজেপি এবং বিরোধী দলগুলোর নেতাকর্মীর কথার লড়াইয়ে উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে ভারতের রাজনীতি।

সংঘাত-সহিংসতার আশঙ্কায় ভোট কেন্দ্রগুলোতে কেন্দ্রীয় বাহিনীকে সতর্ক থাকতে বলা হয়েছে। নির্বাচন কমিশন এক বিবৃতিতে বলেছে, দ্বিতীয় দফা নির্বাচনে নিরাপত্তার কোনো রকম ফাঁক বরদাশ্ত করা হবে না। এই দফায় আসামে ৫টি আসনে ভোটগ্রহণ করা হবে। আসনগুলো হলো-স্বশাসিত জেলা, করিমগঞ্জ, মঙ্গলদই, নগাঁও, শিলচর। বিহারেও ভোট অনুষ্ঠিত হবে ৫ আসনে। এগুলো হলো- বাঁকা, ভাগলপুর, কটিহার, কিষানগঞ্জ, পুর্নিয়া। ছত্তিশগড়ে ভোট হবে ৩ আসনে।

এগুলো হলো- কাঁকের, মহাসমুন্দ, রাজনন্দগাঁও। জম্মু-কাশ্মীরে ভোট হবে ২ আসনে। এগুলো হলো- শ্রীনগর ও উধমপুর। কর্নাটকে ভোট হবে ১৪ আসনে। এগুলো হলো- বেঙ্গালুরু মধ্য, বেঙ্গালুরু উত্তর, বেঙ্গালুরু গ্রামীণ, বেঙ্গালুরু দক্ষিণ, চামরাজনগর, চিকবল্লাপুর, চিত্রদুর্গ, দক্ষিণ কন্নড়, হাসান, কোলার, মান্ড্য, মহিষুর, টুমকুর, উডুপি চিকমাগালুর।

মহারাষ্ট্রে ভোট হবে ১০ আসনে; এগুলো হলো-আকোলা, অমরাবতী, বিড, বুলধানা, হিঙ্গোলি, লাতুর, নান্দেড়, ওসমানাবাদ, পারভানি, শোলাপুর। উরিষ্যায় ভোট হবে ৫ আসনে। এগুলো হলো-আসকা, বারগড়, বোলাঙ্গির, কন্ধমাল, সুন্দরগড়।

সর্বোচ্চ ৩৯ আসনে ভোট হবে তামিলনাড়ুতে। এগুলো হলো-আরাক্কোনম, আরানি, চেন্নাই মধ্য, চেন্নাই উত্তর, চেন্নাই দক্ষিণ, চিদম্বরম, কোয়মবত্তুর, কাড্ডালোর, ধর্মপুরি, দিন্দিগুল, এরোড, কল্লাকুরিচি, কাঞ্চিপুরম, কন্যাকুমারী, কারুর, কৃষ্ণগিরি, মাদুরাই, মাইলাধুতুরাই, নাগাপট্টিনম, নমক্কল, নীলগিরি, পেরাম্বালুর, পোল্লাচি, রামনাথপুরম, সালেম, শিবগঙ্গা, শ্রীপেরুমবুদুর, তেনকাশি, তাঞ্জাভুর, থেনি, থিরুভাল্লুুর, থুথুক্কুডি, তিরুচিরাপল্লি, তিরুনেলভেলি, তিরুপ্পুর, তিরুভান্নামালাই, ভেলোর, ভিলুপ্পুরম, ভিরুধুনগর। উত্তরপ্রদেশে ভোট হবে ৮ আসনে। এগুলো হলো-আগরা, আলিগড়, আমরোহা, বুলন্দশহর, ফতেহপুর সিকরি, হাথরস, মথুরা, নাগিনা।

পশ্চিমবঙ্গে ভোট হবে ৩ আসনে। এগুলো হলো-দার্জেলিং, জলপাইগুড়ি ও রায়গঞ্জ।

এ ছাড়া ত্রিপুরা, পদুচেরি ও মনিপুরে ১টি কেন্দ্র ভোট হবে। মোট ৭ ধাপের এই নির্বাচনের তৃতীয় ধাপ হবে ২৩ এপ্রিল। নির্বাচন শেষ হলে আগামী ২৩ মে থেকে ভোট গণনা শুরু হবে। সেদিনই ঘোষণা হবে ফল। এদিকে দ্বিতীয় দফা নির্বাচনের আগেই বাংলাদেশি চিত্রনায়ক ফেরদৌস ও টিভি অভিনেতা আবদুন গাজী নূরের তৃণমূলের হয়ে প্রচারে অংশ নেওয়া নিয়ে তুমুল আলোচনা হচ্ছে। এরই মধ্যে কোড অব কন্ডাক্ট ভাঙার অভিযোগে ফেরদৌসের ভিসা বাতিল করা হয়েছে। মঙ্গলবার রাতেই তিনি দেশে ফেরেন। একই ঘটনা ঘটতে পারে নূরের ক্ষেত্রেও। এ ছাড়া গতকাল তামিলনাড়– থেকে উদ্ধার হয়েছে ৩ কোটির বেশি রুপি। এসব অর্থ ভোটারদের মধ্যে বিলির জন্য রাখা হয়েছিল বলে জানিয়েছে আয়কর দপ্তর। বাতিল করা হয়েছে রাজ্যের ভেলোর কেন্দ্রের নির্বাচন।

অন্যদিকে নির্বাচনকে কেন্দ্র করে দেশটির রাজনৈতিক নেতারা উত্তপ্ত বাক্য বিনিময় অব্যাহত রেখেছেন। গতকাল তৃণমূল নেত্রী ও পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছেন, মুর্শিদাবাদে কংগ্রেসের হয়ে প্রচার করছে উগ্র হিন্দুত্ববাদী সংগঠন আরএসএস। টাকার থলি নিয়ে রাস্তায় রাস্তায় ঘুরছে আরএসএস দালালরা। কংগ্রেস, সিপিআইএম ও বিজেপিকে একটিও ভোট না দিতে জনগণকে আহ্বান জানান তিনি। ছত্তিশগড়ের শিল্প ও বাণিজ্যমন্ত্রী কাওয়াসি লাখমার বলেছেন, কংগ্রেসকে ভোট না দিলে বৈদ্যুতিক শক খেতে হবে। গুজরাটের ফতেহপুরের বিজেপি বিধায়ক রমেশ কাটারা বলেছেন, সব ভোটকেন্দ্রের বুথে ক্যামেরা লাগানো আছে। যারা বিজেপিকে ভোট দেবে না, তা ঠিক জানতে পেরে যাবে দল এবং তাদের ভবিষ্যতে চাকরি দেওয়া হবে না। দেশটির কেন্দ্রীয় মন্ত্রী উমা ভারতী আক্রমণ করেছেন কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধীর বোন প্রিয়াংকাকে। তিনি প্রিয়াংকাকে চোরের বউ বলে আখ্যায়িত করেছেন।