advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

অসংক্রামক রোগে মৃত্যু ৬৭ শতাংশের

নিজস্ব প্রতিবেদক
১৮ এপ্রিল ২০১৯ ০০:০০ | আপডেট: ১৮ এপ্রিল ২০১৯ ০৯:৩৬

অসংক্রামক রোগে আক্রান্ত মানুষের সংখ্যা বেড়ে চলেছে। দেশে মোট মৃত্যুর ৬৭ শতাংশই হচ্ছে নানা অসংক্রামক রোগের কারণে। আর এসব রোগের চিকিৎসায় বছরে খরচ হয় চার হাজার কোটি টাকা। বিপুল ব্যয়ের কারণে বছরে ৪ শতাংশ মানুষের আর্থিক অবস্থার ব্যাপক অবনতি হয়। গতকাল বুধবার অসংক্রামক রোগ নিয়ন্ত্রণ সংক্রান্ত সেমিনারে এই তথ্য জানানো হয়।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের নন-কমিউনিক্যাবল ডিজিজ নিয়ন্ত্রণ শাখা ও দৈনিক ভোরের কাগজ জাতীয় প্রেসক্লাবে এই সেমিনার আয়োজন করে। ভোরের কাগজের সম্পাদক শ্যামল দত্তের সঞ্চালনায় সেমিনারে স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী মো. মুরাদ হোসেন, স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের সচিব মো. আসাদুল ইসলাম, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের পরিচালক নূর মোহাম্মদসহ বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক ও গবেষকরা অংশ নেন। মূল প্রবন্ধে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (উন্নয়ন ও পরিকল্পনা) অধ্যাপক ডা. এএইচএম এনায়েত হোসেন বলেন, বিশ্বে যে ১০টি রোগে মানুষের বেশি মৃত্যু হয়, তার মধ্যে ৭টিই অসংক্রামক। ২০১১ সালে বাংলাদেশে অসংক্রামক রোগে মৃত্যুর হার ছিল ৫২ শতাংশ; যা ২০১৭ সালে বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৬৭ শতাংশে। দেশে অসংক্রামক রোগের মৃত্যুর হার বেড়ে যাচ্ছে।

এসব রোগে আক্রান্ত যারা মারা যাচ্ছেন না, তারা অক্ষম হয়ে পড়ছেন। তিনি আরও বলেন, আমরা হিসাব করে দেখেছি প্রতি বছর অসংক্রামক রোগের কারণে আমাদের ৪ হাজার কোটি টাকা ব্যয় হয়। কিন্তু আমরা এটি বের করতে পারিনি, কত কোটি টাকা বিনিয়োগ করলে এই ৪ হাজার কোটি টাকা রক্ষা করা যাবে। তিনি আরও বলেন, কার্ডিওভাসকুলার ডিজিজ, ডায়াবেটিস, ক্যানসার, সিওপিডি ও মেন্টাল হেলথ এই পাঁচটি অসংক্রামক রোগের জন্য কারণ হচ্ছে তামাক, শারীরিক পরিশ্রম না করা, বায়ুদূষণ, অস্বাস্থ্যকর খাবার ও অ্যালকোহল গ্রহণ।

২০১৮ সালের একটি জরিপ অনুযায়ী, দেশে ২৮ দশমিক ৪ শতাংশ মানুষের দেহে কোলেস্টেরল, ২৬ দশমিক ২ শতাংশের হাইপারটেনশন, ১১ শতাংশের ক্যানসার, ১০ শতাংশের সিওপিডি (শ্বাসতন্ত্র) এবং ৮ দশমিক ৪ শতাংশের ডায়বেটিস রয়েছে। সেমিনারে জানানো হয়, অসংক্রামক রোগ প্রতিরোধে অস্বাস্থ্যকর খাবার পরিত্যাগের পাশাপাশি প্রতিদিন ৪০০ গ্রাম শাকসবজি ও ফুলমূল গ্রহণ এবং শারীরিক পরিশ্রম করতে হবে।