advertisement
Azuba
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

অবশেষে রক্ষা পেল এলআরবি

তারেক আনন্দ
১৮ এপ্রিল ২০১৯ ০০:০০ | আপডেট: ১৮ এপ্রিল ২০১৯ ০৯:২৬
advertisement

গত কয়েক দিনে দেশের জনপ্রিয় ব্যান্ড ‘এলআরবি’ নিয়ে কম জল ঘোলা হয়নি। প্রথমে বালামের যোগদান। এর পর পরিবারের ঘোর আপত্তিতে ব্যান্ডের নাম পরিবর্তন। সব মিলিয়ে রকস্টার আইয়ুব বাচ্চুর চলে যাওয়ার মাত্র কয়েক মাস পরই ব্যান্ড দলটির ওপর নেমে এল কালবৈশাখী ঝড়!

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে এলআরবি ভক্তদের এক প্রকার তোপের মুখেই পড়েন ব্যান্ডের সদস্যরা। সব কিছুরই শেষ আছে। শেষ হলো ‘এলআরবি’ নিয়ে টানাহেঁচড়া। ব্যান্ডের ভক্তদের জন্য সুখবরটা দিলেন আইয়ুব বাচ্চুর ছেলে আহনাফ তাজওয়ার আইয়ুব।

মঙ্গলবার দুপুরে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে একটি স্ট্যাটাস দেন তিনি। তিনি লিখেছেন, ‘আমার বাবা আমার ব্যক্তিগত সম্পত্তি নন। তিনি আমার বোনেরও ব্যক্তিগত সম্পত্তি নন। তিনি বাংলাদেশের জাতীয় সম্পদ। ছিলেন, আছেন এবং থাকবেন। তার গানগুলোর ভেতর দিয়ে তিনি মানুষের হৃদয়ে বেঁচে থাকবেন। এলআরবি অথবা বালাম অ্যান্ড দ্য লিগ্যাসির (তারা এখন এই নামে গান করতে চান) সদস্যদের বলতে চাই, তারা চাইলে এলআরবি নামে গান করতে পারেন। এ নিয়ে আমাদের কোনো বাধা নেই। প্রাথমিকভাবে তারা যেভাবে এলআরবি নামে গান করতে চেয়েছিলেন, সেভাবেই গান চালিয়ে যেতে পারেন। তাদের জন্য শুভকামনা রইল। আশা করি, তারা সফল হবেন এবং বাবার গান নিয়ে এগিয়ে যাবেন। আমার চাওয়া, এলআরবি সব সাফল্য অর্জন করবে।’

এ প্রসঙ্গে ব্যান্ডের ম্যানেজার শামীম আহমেদ বলেছেন, ‘বস যখন ছিলেন, তখনো তাজওয়ার এলআরবিতে বাজিয়েছে। ও খুব মেধাবী আর ভালো মিউজিশিয়ান। পাশাপাশি পড়াশোনাতে ও খুবই ভালো। বস কখনো চাননি তার ছেলে গান করুক। তিনি চেয়েছেন, তাজওয়ার আগে পড়াশোনা শেষ করুক। আমরাও তা-ই চাই। ও যখন সিদ্ধান্ত নেবে, তখনই এলআরবিতে আসবে। আমরা এখন পাঁচজন আছি, ও এলে ছয়জন হবে। গতকাল ফেসবুকে ও যে স্ট্যাটাস দিয়েছে, তা ইতিবাচক সিদ্ধান্ত নেওয়ার ব্যাপারে আমাদের সহায়তা করেছে। আমি বলব, বড় বিপর্যয়ের হাত থেকে আমরা সবাই রক্ষা পেয়েছি। এটা একদিকে আমাদের ব্যান্ডের জন্যও যেমন ভালো হলো, তেমনি বসের পরিবারের জন্যও তা ভালো হবে।’

শামীম আহমেদ জানান, প্রাথমিক সিদ্ধান্ত অনুযায়ী এলআরবি এখন যে আয় করবে, তা থেকে একটা অংশ পাবে আইয়ুব বাচ্চুর পরিবার। তবে ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মে এলআরবির কনটেন্ট থেকে আইয়ুব বাচ্চুর পরিবার যা পাচ্ছে, তা তারা পাবে। ১৯৯০ সালের ৫ এপ্রিল এলআরবি প্রতিষ্ঠা করেন আইয়ুব বাচ্চু। শুরুতে এই ব্যান্ডের নাম ছিল ‘লিটল রিভার ব্যান্ড’ (এলআরবি)। ১৯৯৭ সালে নাম বদলে রাখা হয় ‘লাভ রানস ব্লাইন্ড’ (এলআরবি)। হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে গত বছরের ১৮ অক্টোবর সকালে নিজ বাসায় মারা যান আইয়ুব বাচ্চু।

advertisement