advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

ফেরদৌসের পাশে দাঁড়ালেন ঋতুপর্ণা

বিনোদন প্রতিবেদক
১৮ এপ্রিল ২০১৯ ১৬:১৩ | আপডেট: ১৮ এপ্রিল ২০১৯ ১৬:১৩

একসঙ্গে বেশ ক’টি ছবিতে অভিনয় করেছেন চিত্রনায়ক ফেরদৌস এবং ওপার বাংলার জনপ্রিয় অভিনেত্রী ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ত। পর্দার বাইরেও তারা দু’জন বেশ ভালো বন্ধু। এই জুটি চলতি বছর কলকাতায় ‘দত্তা’ নামে নতুন এক ছবিতে কাজ শুরু করেছেন। কিন্তু এর মধ্যেই ভারতে নির্বাচনী প্রচারণায় ফেরদৌসের অংশগ্রহণ বিতর্কের জন্ম দেয়। এর ফলে স্থগিত হয়েছে ফেরদৌসের ভারতীয় ভিসা। শঙ্কা তৈরি হয়েছে নতুন ছবির কাজে।

এদিকে চিত্রনায়ক ফেরদৌসের নির্বাচনী প্রচারণায় অংশ নেওয়া এবং ভারতীয় ভিসা স্থগিত প্রসঙ্গে টলিউডের অভিনয়শিল্পীদের নীরব থাকতে দেখা গেছে। কিন্তু এবার ফেরদৌস প্রসঙ্গে মুখ খুলেছেন জনপ্রিয় অভিনেত্রী ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ত।

ভারতের টাইমস অব ইন্ডিয়া’র এক খবরে ঋতুপর্ণা বলেন, ‘ফেরদৌসের সঙ্গে সর্বশেষ ১১ এপ্রিল ছবির শুটিং করি। গত মঙ্গলবার নির্বাচনী বিতর্কের কথাটি জানতে পারি। এটুকু বলতে পারি, ফেরদৌস টলিউডের অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ অংশ। ফলে যাই সিদ্ধান্ত নেওয়া হোক সবকিছু বিবেচনা করা উচিৎ।’

সংবাদমাধ্যমে ‘দত্তা’ ছবির পরিচালক নির্মল চক্রবর্তী বলেন, ‘আমরা মনোযোগ সহকারে পুরো বিষয়টি পর্যবেক্ষণ করছি। ফেরদৌসের জন্য আসলে ভিসা জটিলতা কেমন পর্যায়ে যাচ্ছে তার ওপরই ছবির বাকি কাজ নির্ভর করছে। যদি বাধাটা স্থায়ী হয় তাহলে ফেরদৌসের জায়গায় হয়তো নতুন কাউকে নিতে হবে। কিন্তু ফেরদৌসের মতো শক্তিশালী অভিনেতাকে আমরা বাদ দিতে চাই না।’

জানা গেছে, ‘দত্তা’ নির্মিত হচ্ছে শরৎচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়ের উপন্যাস অবলম্বনে। এতে ফেরদৌস অভিনয় করছেন বিলাস চরিত্রে।

উল্লেখ্য, গত রোববার ভারতের পশ্চিমবঙ্গের উত্তর দিনাজপুরের রায়গঞ্জে পশ্চিমবঙ্গের ক্ষমতাসীন দল তৃণমূল কংগ্রেসের প্রার্থী কানহাইয়ালাল আগরওয়ালের নির্বাচনী প্রচারে অংশ নেন ফেরদৌস। ভারতের নির্বাচনী প্রচারণায় অংশ নেওয়ার কারণে ফেরদৌসের ভিসা বাতিল করে ভারত সরকার। শুধু তাই নয়, দেশটির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় তাকে কালো তালিকাভুক্ত করেছে। এরপর মঙ্গলবার রাতে কলকাতা থেকে ঢাকায় ফেরেন তিনি। সবশেষে গতকাল পুরো বিষয়টি নিয়ে দুঃখ প্রকাশ করেন ফেরদৌস।