advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

প্রেম করে বিয়ে, এক বছরের মাথায় স্ত্রীকে গলা টিপে হত্যা!

চকরিয়া (কক্সবাজার) প্রতিনিধি
১৮ এপ্রিল ২০১৯ ১৭:১২ | আপডেট: ১৮ এপ্রিল ২০১৯ ১৭:২৯
advertisement

কক্সবাজারের চকরিয়ায় মাদকের টাকার জন্য স্ত্রীকে গলা টিপে হত্যার অভিযোগ উঠেছে  মিজানুর রহমান নামের এক মাদকাসক্তের বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় তাকে আটক করে পুলিশে দিয়েছেন স্থানীয়রা।  

আজ বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টার দিকে চকরিয়া পৌরসভার মগবাজারের ভাড়া বাসায় এ ঘটনা ঘটে।

নিহত ফাতেমা বেগম রুম্পা (২০) মহেশখালী উপজেলার মাতারবাড়ী ইউনিয়নের সিকদারপাড়ার বাহাদুর আলমের মেয়ে। আটক মিজানুর রহমান চকরিয়ার ডুলাহাজারা ইউনিয়নের সোয়াজানিয়া এলাকার বাসিন্দা। 

নিহত ফাতেমার ছোট বোন আশরফা বিলকিস বলেন, এক বছর আগে মিজানুর রহমানের সঙ্গে আমার বড় বোন প্রেমের সম্পর্কে জড়ায়। পরে পরিবারের অমতে তারা পালিয়ে বিয়ে করেন। মিজান মাদকাসক্ত ছিল। বিয়ের পর আমার বড় বোনের কাছ থেকে মাদক সেবনের জন্য প্রতিনিয়তই টাকা চাইতো। টাকা না পেলেই মারধর করত।

আশরফা বিলকিস বলেন, আজ দুপুর ১২টার দিকে তাদের মধ্যে মাদকের টাকা নিয়ে কথা কাটাকাটি হয়। একপর্যায়ে মিজানুর রহমান আমার বড় বোনকে গলা টিপে হত্যা করে। তাদের পরিবারে কোনো সন্তান নেই।

চকরিয়া থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) চম্পক বড়ুয়া বলেন, খবর পেয়ে চকরিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে গিয়ে জনতার সহায়তায় মিজানুর রহমানকে আটক করেছে পুলিশ। তিনি স্বীকার করেছেন যে, গলা টিপে স্ত্রীকে হত্যা করেছেন। নিহত ফাতেমার মরদেহের প্রাথমিক সুরতহাল রিপোর্ট তৈরি করা হয়েছে।

চকরিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক তামিমুল হাসান বলেন, স্থানীয় কয়েকজন যুবক ফাতেমাকে হাসপাতালে নিয়ে আসে। হাসপাতালের আনার আগেই ফাতেমা মারা যায়। 

চকরিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. বখতিয়ার উদ্দিন চৌধুরী বলেন, স্ত্রীকে হত্যার অভিযোগে মিজানুর রহমানকে আটক করা হয়েছে। আর মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

advertisement