advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

দাওয়াত না দেওয়ায় বর্ষবরণ অনুষ্ঠানে হামলা ছাত্রলীগের

সিলেট ব্যুরো
১৯ এপ্রিল ২০১৯ ০০:০০ | আপডেট: ১৯ এপ্রিল ২০১৯ ১১:৪৯

দাওয়াত না দেওয়ায় সিলেট নগরীর মদনমোহন কলেজের শিক্ষার্থীদের উদ্যোগে আয়োজিত বর্ষবরণ অনুষ্ঠানে হামলা চালিয়েছে ছাত্রলীগ। হামলার পর অনুষ্ঠানস্থলে ব্যাপক ভাঙচুর চালায় তারা। এতে প- হয়ে যায় বর্ষবরণ অনুষ্ঠান।

আয়োজকরা জানান, মদনমোহন কলেজের তারাপুর ক্যাম্পাসের অ্যাকাউন্টিং ও ম্যানেজমেন্ট বিভাগের শিক্ষার্থীরা ক্যাম্পাসের অদূরে আলী বাহার চা-বাগানের বাংলোয় গতকাল বৃহস্পতিবার বর্ষবরণ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। সকালে এ অনুষ্ঠান শুরু হয়। দুপুর দেড়টার দিকে অনুষ্ঠানে হামলা চালায় ছাত্রলীগের ৩০-৩৫ জনের একটি গ্রুপ। সশস্ত্র মিছিল নিয়ে তারা অনুষ্ঠানে হামলা চালিয়ে ব্যাপক ভাঙচুর করে। অনুষ্ঠানের মঞ্চ, চেয়ার, সাউন্ড বক্সসহ চা-বাগানোর বাংলোও ভাঙচুর করে তারা। এ সময় পঙ্কজ ও তামান্না নামে দুই শিক্ষককেও লাঞ্ছিত করে হামলাকারীরা। হামলায় চার-পাঁচজন আহত হন। নগরীর অন্যতম বৃহৎ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান মদনমোহন কলেজের লামাবাজার ও তারাপুরে দুটি ক্যাম্পাস রয়েছে। লামাবাজারের ক্যাম্পাসটিই মূল ক্যাম্পাস হিসেবে পরিচিত। বর্ষবরণ অনুষ্ঠান আয়োজনের সঙ্গে তারাপুর ক্যাম্পাসের ছাত্রলীগ নেতারাও সম্পৃক্ত ছিলেন। তবে লামাবাজ ক্যাম্পাসের ছাত্রলীগ নেতাদের এ অনুষ্ঠানে আমন্ত্রণ জানানো হয়নি। এতেই ক্ষুব্ধ হয়ে লামাবাজার ক্যাম্পাসের ছাত্রলীগ নেতারা এ হামলা চালায় বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

advertisement

নগরীর বিমানবন্দর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এসএম শাহাদাত হোসেন বলেন, অনুষ্ঠান আয়োজনের সঙ্গে ছাত্রলীগের একটি পক্ষও ছিল। ছাত্রলীগের আরেক পক্ষকে দাওয়াত না দেওয়ায় তারা হামলা চালিয়েছে। হামলার পর আয়োজকরা অনুষ্ঠান বন্ধ করে দেন।

তবে হামলার সঙ্গে ছাত্রলীগের সংশ্লিষ্টতার অভিযোগ অস্বীকার করে মদনমোহন কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি মাহমুদুল হাসান সানি বলেন, কলেজের মূল ক্যাম্পাসে (লামাবাজার) আজ (বৃহস্পতিবার) পরীক্ষা চলছে। ছাত্রলীগের সবাই এখানে রয়েছে। ওই অনুষ্ঠানের দিকে কেউ যায়নি। ছাত্রলীগের নামে অপপ্রচার চালানো হচ্ছে। কলেজের তারাপুর ক্যাম্পাসের ইনচার্জ অধ্যাপক জয়ন্ত কুমার দাশ বলেন, ছাত্ররা আমাদের অনুমতি নিয়ে এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছিল। শুনেছি গাড়ি পার্কিং নিয়ে তাদের মধ্যে ঝামেলা হয়েছে। তবে হতাহতের কোনো ঘটনা ঘটেনি।