advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

প্রতিপক্ষকে ফাঁসাতে নিজ দলের লোককে হত্যার অভিযোগ

ফরিদপুর প্রতিনিধি
১৯ এপ্রিল ২০১৯ ০০:০০ | আপডেট: ১৯ এপ্রিল ২০১৯ ১০:১৮

ফরিদপুরের বোয়ালমারী উপজেলার চতুল ইউনিয়নের পোয়াইল গ্রামে দুপক্ষের সংঘর্ষের আহত দেলোয়ার মাতুব্বরকে তার চাচাতো ভাই জামাল মাতুব্বর ও তার লোকেরাই হত্যা করেছে। দুজন প্রত্যক্ষদর্শীর বরাত দিয়ে গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে বোয়ালমারীর ময়েনদিয়া বাজারে এক সংবাদ সম্মেলনে এ অভিযোগ করা হয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য রাখেন সাবেক ব্যাংক কর্মকর্তা গাজী সামসুজ্জামান খোকনের স্ত্রী ফরিদা জামান। তিনি হত্যার রহস্য উদঘাটনের জন্য সিআইডি কিংবা পিবিআইর মাধ্যমে মামলাটি তদন্তের জোর দাবি জানান। তবে জামাল মাতুব্বর এ অভিযোগ অস্বীকার করেছেন। গত ৩ এপ্রিল পোয়াইল গ্রামে স্থানীয় আওয়ামী লীগের দুপক্ষের সংঘর্ষে দেলোয়ার মাতুব্বর নিহত হন। এ ঘটনায় আরও কয়েকজন আহত এবং বাড়িঘর ভাঙচুর ও লুটপাটের ঘটনা ঘটে।

এ ব্যাপারে জামাল মাতুব্বর বলেন, রাত ১০টা কিংবা সাড়ে ১০টার দিকে আহত হয় দেলোয়ার। তাকে হাসপাতালে নেওয়ার জন্য অ্যাম্বুলেন্স চালক রওনা দিলেও বাবুর বাজারে এসে আটকা পড়ে। কারণ সেখানে তখন পুলিশের উপস্থিতিতেই প্রতিপক্ষ দলের লোকেরা অস্ত্র নিয়ে দাঙ্গা ও লুটপাটে ব্যস্ত ছিল। পরে রাত সাড়ে তিনটার দিকে নটখোলা-নারানদিয়া হয়ে ফরিদপুর যাওয়ার পথে দেলোয়ার মারা যায়।

ফরিদপুরের পুলিশ সুপার জাকির হোসেন খান বলেন, পুলিশ, সিআইডি বা পিবিআই যে বিভাগই তদন্ত করুক, সেটি নিরপেক্ষ এবং সঠিকভাবেই সম্পন্ন করা হবে। এ নিশ্চয়তা আমি দিচ্ছি। অপরাধীদের ছাড় দেওয়া হবে না। পাশাপাশি নিরীহ কাউকেও হয়রানি করা হবে না।