advertisement
Dr Shantu Kumar Ghosh
advertisement
Dr Shantu Kumar Ghosh
advertisement
advertisement

বর্তমানে গণমাধ্যম একটা শিল্পে পরিণত হয়েছে : নৌ প্রতিমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক
১৯ এপ্রিল ২০১৯ ১৬:৪০ | আপডেট: ১৯ এপ্রিল ২০১৯ ১৭:১৫

আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী বলেছেন, বাংলাদেশের গণমাধ্যমের এত বড় ক্যানভাস ছিল না।  এত বড় পরিধি ছিল না। বর্তমানে গণমাধ্যম একটা শিল্পে পরিণত হয়েছে। প্রতিনিয়ত গণমাধ্যমে গণতন্ত্রের চর্চা হচ্ছে।

আজ শুক্রবার সকালে শিল্পকলা একাডেমির জাতীয় চিত্রশালা মিলনায়তনে বাংলাদেশ ফটোজার্নালিস্ট অ্যাসোসিয়েশন ও বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমি আয়োজিত ‘রূপসী বাংলা’ শীর্ষক জাতীয় ফটো প্রদর্শনীতে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে প্রতিমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী বলেন, ৩৮টি টিভি চ্যানেল এবং কয়েক হাজার জাতীয় দৈনিক পত্রিকা রয়েছে। কোনটার কোনো সেন্সর করা হচ্ছে না।  স্বাধীনভাবে তারা তাদের সংবাদ পরিবেশন করছে। গণমাধ্যমে বিভিন্ন মত ও পথের মানুষ তাদের প্রকাশ করার সুযোগ পাচ্ছে। এই কাজটি করেছেন আওয়ামী লীগ সভাপতি, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

খালিদ মাহমুদ চৌধুরী বলেন, একটি ছবি অনেক কথা বলে। আমাদের আলোকচিত্র সাংবাদিকরা জীবনের ঝুঁকি নিয়ে প্রতিনিয়ত ছবি তুলে চলেছেন। তাদের ছবি ইতিহাসের সাক্ষ্য দেয়। তাদের ক্যামেরা বাংলাদেশের ও মানুষের কথা বলে।

এ সময় চারণ সাংবাদিক মোনাজাত উদ্দিনের সঙ্গে নিজের ব্যক্তি জীবনের স্মৃতির কথা বলেন খালিদ মাহমুদ চৌধুরী। তিনি বলেন, ১৯৯২ সালে সারের জন্য আন্দোলনরত অবস্থায় জীবনের ঝুঁকি নিয়ে কীভাবে মোনাজাত উদ্দিন ছবি তুলেছিলেন এবং সেই ছবি পরবর্তীতের শুধু বাংলাদেশ নয় সারা বিশ্বে আলোড়িত হয়েছিল।

আজ থেকে শুরু হওয়া ‘রূপসী বাংলা জাতীয় ফটো প্রদর্শনীতে এবার সম্মাননা জানানো হয়েছে প্রয়াত তিন আলোকচিত্র সাংবাদিক এস এম মোজাম্মিল হোসেন, মোশারফ হোসেন লাল ও জহিরুল হককে।

গতকাল সকালে শিল্পকলা একাডেমির জাতীয় চিত্রশালা মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ। বিশেষ অতিথি ছিলেন জাতীয় প্রেসক্লাবের সভাপতি সাইফুল আলম। শিল্পকলা একাডেমির মহাপরিচালক লিয়াকত আলী লাকীর সভাপতিত্বে আরও বক্তব্য দেন একাডেমির সচিব ড. কাজী আসাদুজ্জামান, সিনিয়র আলোকচিত্র সাংবাদিক রফিকুর রহমান এবং ফটো জার্নালিস্ট অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি গোলাম মোস্তফা ও সাধারণ সম্পাদক কাজল হাজরা।

তিনদিনের এ প্রদর্শনীতে ৬৫ জন আলোকচিত্র সাংবাদিকের ৬৫টি আলোকচিত্র স্থান পেয়েছে। আগামী রোববার পর্যন্ত প্রতিদিন বেলা ১১টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত এ প্রদর্শনী সবার জন্য উন্মুক্ত থাকবে।