advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

সোনাগাজীর ইসলামীয়া মাদ্রাসার কমিটি বাতিল

সোনাগাজী প্রতিনিধি
১৯ এপ্রিল ২০১৯ ১৯:৫৪ | আপডেট: ১৯ এপ্রিল ২০১৯ ১৯:৫৪
advertisement

ফেনীর সোনাগাজী ইসলামীয়া সিনিয়র ফাজিল মাদ্রাসার ১৩ সদস্য বিশিষ্ট পরিচালনা কমিটি বাতিল করা হয়েছে। আজ শুক্রবার মাদ্রাসাটির কমিটি বাতিলের ঘোষণা করেছে ইসলামী আরবী বিশ্ববিদ্যালয়, ঢাকা।

ইসলামী আরবী বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইস চ্যান্সেলর ড. আহছান উল্লাহ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

সোনাগাজী ইসলামীয়া সিনিয়র ফাজিল মাদ্রাসার ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ মো. হোসাইন আহমদ বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, ইসলামী আরবী বিশ্ববিদ্যালয় থেকে তাদের মাদ্রাসার ১৩ সদস্য বিশিষ্ট পরিচালনা কমিটি বাতিল ঘোষণা করা হয়েছে।

আগামী দু এক দিনের মধ্যে ৫ সদস্য বিশিষ্ট এডহক কমিটি গঠন করা হবে বলেও জানান হোসাইন আহমদ।

ছাত্রী নুসরাত জাহান রাফি হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় মাদ্রসার কমিটি বাতিল করা হয়। এই হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় দুই দিনব্যাপী ঘটনাস্থল পরিদর্শন ও তদন্ত শেষে গতকাল বৃহস্পতিবার বিকেলে পুলিশের গাফিলতি তদন্ত কমিটির প্রধান পুলিশ সদর দপ্তরের ডিআইজি মো. রুহুল আমীন সাংবাদিকদের বলেন, ২৭ তারিখের যৌন হয়রানির ঘটনায় স্থানীয় প্রশাসন, ম্যানেজিং কমিটি ব্যবস্থা নিলে নুসরাতের গায়ে আগুনের ঘটনা এড়ানো যেত।

ডিআইজি মো. রুহুল আমীনের নেতৃত্বে একজন পুলিশ সুপার, দুজন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ও একজন পরিদর্শক এ তদন্তে উপস্থিত ছিলেন।

গত ৬ এপ্রিল সকালে আলিম পরীক্ষা দিতে সোনাগাজী ইসলামিয়া সিনিয়র ফাজিল মাদ্রাসায় যান নুসরাত জাহান রাফি। মাদ্রাসার আরেক ছাত্রী ও তার সহপাঠী নিশাতকে ছাদের ওপর কেউ মারধর করছে, এমন সংবাদ দিলে তিনি ওই ভবনের তিনতলায় যান। সেখানে মুখোশধারী বোরকা পরিহিত ৪-৫ জন তাকে অধ্যক্ষ সিরাজ উদ্দৌলার বিরুদ্ধে মামলা ও অভিযোগ তুলে নিতে চাপ দেয়। তিনি অস্বীকৃতি জানালে গায়ে আগুন দিয়ে পালিয়ে যায় দুর্বৃত্তরা। গত ১০ এপ্রিল ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন মারা যান নুসরাত।

advertisement