advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

শিক্ষার্থীরা কাকে অনুসরণ করবে

নিজস্ব প্রতিবেদক
২০ এপ্রিল ২০১৯ ০০:০০ | আপডেট: ২০ এপ্রিল ২০১৯ ০৯:০১
advertisement

প্রশ্নপত্রে অপ্রাসঙ্গিকভাবে পর্নোতারকাদের নাম ব্যবহারের মাধ্যমে শিশুদের ভুল বার্তা দেওয়া হয়েছে বলে মনে করেন মনস্তত্ত্ববিদ ও সাহিত্যিক ডা. এমএ মোহিত কামাল। তিনি বলেন, শিশুরা অনুসরণের মাধ্যমেই শেখে। সানি লিওনের মতো কাউকে শিক্ষার্থীরা অনুসরণ করুক আমরা তা চাইব না।

তিনি বলেন, শিক্ষার ক্ষেত্রে আমরা দুটি বিষয়ের কথা বলি। একটি হলো-‘লার্নিং বাই আইডেন্টিফিকেশন’, আরেকটি ‘সেলফ ইনিশিয়েটিভ লার্নিং’। শিশুরা একজনকে আদর্শ মনে করে তাকে অনুসরণ করে শেখে। কেউ জাফর ইকবাল হতে চায়, কেউ রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর, কাজী নজরুল ইসলামকে আদর্শ মনে করে। এভাবে আইডেন্টিফাইয়ের মাধ্যমে তারা শেখে। ছোটবেলায় এই আইডেন্টিফিকেশন খুবই গুরুত্বপূর্ণ। শিক্ষার্থীকে জীবনের লক্ষ্যে পৌঁছতে একজন আদর্শ ব্যক্তিত্ব অনেকভাবে প্রভাবিত করে। এখন সানি লিওন যেই ব্যক্তিত্ব, তা আমাদের দেশের জন্য প্রযোজ্য নয়। আমাদের সংস্কৃতি, ধর্মের সঙ্গে যায় না। এ ধরনের ব্যক্তিকে আমাদের সন্তানরা ‘লার্নিং আইডেন্টিফিকেশন’ করুক আমরা চাই না। যারা এমন প্রশ্নপত্র দিয়েছেন, কী উদ্দেশ্যে দিয়েছেন, তারাই ভালো জানেন। মনস্তাত্ত্বিকভাবে এবং আমাদের ধর্মীয় ও সাংস্কৃতির দিক থেকে এটিকে নাকচ করে দিতে চাই। যারা করেছে, এটি খারাপ কাজ হয়েছে। সমাজের দৃষ্টিতে অন্যায় হয়েছে। যিনি প্রশ্নপত্র তৈরি করেছেন, তিনিই জানেন এটি ভুল না ইচ্ছাকৃত। তদন্তেই তা জানা যাবে। কিন্তু সাদা চোখে দেখলে এটি অপরাধ। এটি একেবারেই গ্রহণযোগ্য নয়।

advertisement