advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

এবার ইয়াবাসহ আটক সিআইডি পুলিশ কনস্টেবল

নিজস্ব প্রতিবেদক,সাভার
২০ এপ্রিল ২০১৯ ০০:০০ | আপডেট: ২০ এপ্রিল ২০১৯ ০৯:২৮

এবার সহযোগীসহ সিআইডি পুলিশের এক কনস্টেবল ৯৯০ পিস ইয়াবাসহ ফেঁসে গেলেন ঢাকা উত্তর জেলা গোয়েন্দাদের হাতে। তার নাম তাইজউদ্দীন। তিনি ঢাকা সিআইডিতে কর্মরত। তার পুলিশ কনস্টেবল নম্বর ১০৯।

গতকাল শুক্রবার ভোরে আশুলিয়ার চানগাঁও থেকে ইয়াবাসহ তাকে আটক করা হয়। ঢাকা উত্তর জেলা গোয়েন্দা পুলিশের ওসি আবুল বাশার জানান, মাদককারবারিদের হাতে ইয়াবার চালান তুলে দিতেই সাভারে এসেছিলেন তাইজউদ্দীন।

advertisement

গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে একটি অটোরিকশা থেকে প্রথমে তাকে আটক করা হয়। প্রাথমিকভাবে তাকে মাদককারবারি মনে করা হলেও পরে নিজেকে তিনি সিআইডি পুলিশের সদস্য বলে পরিচয় দেন। পরিচয় নিশ্চিত করার জন্য বিষয়টি সিআইডি ঢাকা উত্তরা জোনের এএসপি জহির উদ্দিনকে জানানো হলে তিনি আটক তাইজউদ্দীনকে কনস্টেবল বলে শনাক্ত করেন।

গাজীপুর জেলার জয়দেবপুর থানার উত্তর সালনা গ্রামের তোফাজ্জল হোসেন ও নূরজাহান দম্পতির সন্তান তাইজউদ্দীন। দীর্ঘদিন ধরেই তিনি পুলিশি পেশার অন্তরালে ইয়াবা কারবারে যুক্ত ছিলেন বলে জানান গোয়েন্দা কর্মকর্তারা। তার ব্যবহৃত মোবাইল নম্বর : ০১৭৮৮৭৬৩০৭৫ ও ০১৬৮১৫০১৬১৯ জব্দ করা হয়েছে। কললিস্ট খতিয়ে দেখা হচ্ছে। এর মাধ্যমে ইয়াবার উৎস খুঁজে বের করার চেষ্টা চলছে বলেও জানান ডিবির ওসি আবুল বাশার।

এ ঘটনায় ডিবি ঢাকা উত্তর জেলার এসআই গনি মিয়া আশুলিয়া থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন। যোগাযোগ করা হলে ঢাকা জেলার পুলিশ সুপার শাহ মিজান শাফিউর রহমান বলেন, মাদকের বিষয়ে আমাদের নীতি জিরো টলারেন্স। মাদকের সঙ্গে জড়িত সে যেই হোক না কেন, কোনো ছাড় নেই। আজকের ঘটনা তার বড় প্রমাণ। তিনি আরও জানান, মাদককারবারিরা সমাজ ও দেশের শত্রু। পোশাকি পরিচয় পুলিশ হলেও আইনের চোখে সে অপরাধী। এ ক্ষেত্রে কঠোর শাস্তি নিশ্চিত করার বিষয়ে বাংলাদেশ পুলিশ দৃঢ়প্রতিজ্ঞ।