advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

তারেক রহমানকে দেশে এসে কারাভোগ করতেই হবে : শামীম

শরীয়তপুর প্রতিনিধি
২০ এপ্রিল ২০১৯ ২২:০৩ | আপডেট: ২০ এপ্রিল ২০১৯ ২২:০৩

পানিসম্পদ উপমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এ কে এম এনামুল হক শামীম বলেছেন, ‘একুশে আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলার রায়ে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের সাজাপ্রাপ্ত বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানকে দেশে এসে কারাভোগ করতেই হবে।’

আজ শনিবার বিকেলে শরীয়তপুরের নড়িয়ার বিঝারী তারা প্রসন্ন উচ্চ বিদ্যালয়ে বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

উপমন্ত্রী শামীম বলেন, ‘তারেক রহমানের বিরুদ্ধে বিচারের রায় যেহেতু হয়েছে, সেহেতু দেশে ফিরিয়ে এনে সেই বিচারের রায় কার্যকর করাও সম্ভব হবেই। সে যেখানেই লুকিয়ে থাকুক না কেন, একদিন না একদিন তাকে সাজা পেতেই হবে। আর সাজা ভোগও করতে হবে।’

বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি, উপজেলা চেয়ারম্যান এ কে এম ইসমাইল হকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন, জেলা প্রশাসক কাজী আবু তাহের, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আল-মামুন সিকদার, তানভীর হায়দার শাওন, জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি ওহাব বেপারী, আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় উপকমিটির সহসম্পাদক জহির সিকদার, সৈয়দ হেমায়েত হোসেন, আক্তারুজ্জামান জুয়েল, নড়িয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জয়ন্তী রূপা রায়, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি হাসান আলী রাড়ী, সাধারণ সম্পাদক হাসানুজ্জামান খোকন, সখিপুর থানার সাধারণ সম্পাদক মানিক সরকার, নড়িয়া উপজেলা ভাইস-চেয়ারম্যান জাকির বেপারী, মহিলা ভাইস-চেয়ারম্যান নাজমা মোস্তফা, পৌর মেয়র শহিদুল ইসলাম বাবু রাড়ী, বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শেখ নুরুল আমিন রতন প্রমুখ।

এ ছাড়া আজ সকালে কার্তিক উচ্চ বিদ্যালয়ের পুরস্কার বিতরণী ও ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্পেইনে প্রধান অতিথি হিসেবে যোগ দেন উপমন্ত্রী শামীম। এ সময় বিদ্যালয়ের ৮৮ ব্যাচ ফাউন্ডেশনের আহ্বায়ক ডা. মোহাম্মদ ফারুক হোসেন শেখের নেতৃত্বে স্থানীয়দের মাঝে বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা দেওয়া হয়। অনুষ্ঠানে বিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থী, অভিভাবক ও ম্যানেজিং কমিটির নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

এ সময় উপমন্ত্রী বলেন, ‘বিএনপি এখন নাম সর্বস্ব দলে পরিণত হয়েছে। তাদের মুখে শব্দ বোমা ছাড়া আর কিছুই নাই। আর জননেত্রী শেখ হাসিনার দৃঢ় নেতৃত্বে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে। দেশের প্রতিটি ক্ষেত্রে ব্যাপক উন্নয়ন হচ্ছে। আর টেকসই সামাজিক উন্নয়ন ও অগ্রগতি নিশ্চিত করার মাধ্যমে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্নপূরণে ১৬ কোটি মানুষের উন্নয়নে কাজ করাই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার লক্ষ্য।’