advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

যুক্তরাজ্যে তারেকের হিসাবের অর্থ ট্যাক্সপেইড বিএনপি

নিজস্ব প্রতিবেদক
২১ এপ্রিল ২০১৯ ০০:০০ | আপডেট: ২১ এপ্রিল ২০১৯ ০৯:১৭

যুক্তরাজ্যে তারেক রহমানের ব্যাংক হিসাবের অর্থ সে দেশে ট্যাক্সপেইড বলে জানিয়েছে বিএনপি। দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান ও তার স্ত্রী জোবাইদা রহমানের নামে যুক্তরাজ্যে থাকা তিনটি ব্যাংক অ্যাকাউন্ট জব্দ করতে আদালতের আদেশ পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হবে, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামালের এ বক্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী এ কথা জানান।

নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এ সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন দলের ভাইস চেয়ারম্যান অধ্যাপক এজেডএম জাহিদ হোসেন, নিতাই রায়চৌধুরী, কেন্দ্রীয় নেতা হাবিবুল ইসলাম হাবিব, আবদুস সালাম আজাদ, মীর নেওয়াজ আলী প্রমুখ। রিজভী বলেন, তারেক রহমানের কোনো অবৈধ অর্থ নেই। যেটা আমরা বারবার বলেছি, সেটাই প্রমাণিত হয়েছে। যুক্তরাজ্যে তার যা অর্থ আছে তা ইনল্যান্ড রেভিন্যুতে ট্যাক্সপেইড। ইনল্যান্ড রেভিন্যু হচ্ছে সেখানকার ট্যাক্স ডিপার্টমেন্টের মতো। সেখানে আইনের শাসন রয়েছে। সেখানে আনডিসক্লোজড মানি ট্র্যানজেকশন হওয়ার সুযোগ নেই। বিএনপিকে চাপে ফেলতে এ সরকার দুর্নীতি দমন কমিশনকে (দুদক) দিয়ে একটি কাল্পনিক ও মিথ্যা আবেদনের মাধ্যমে আদালত কর্তৃক এ আদেশ করিয়েছে। এটি একটি আষাঢ়ে গল্প। সরকারের মদদে দুদক আদালতকে ব্যবহার করে যে আদেশ জারি করিয়েছে, তার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছে বিএনপি।

রিজভী বলেন, বর্তমান সরকার ও তাদের আন্দোলনের ফসল তৎকালীন ওয়ান ইলেভেন সরকার ১২ বছর ধরে তন্নতন্ন করে খুঁজে তারেক রহমানের অবৈধ সম্পদের কোনো সন্ধান পায়নি। অথচ ঢালাওভাবে তার বিরুদ্ধে মিথ্যা গল্প সাজিয়ে কত যে অপপ্রচার করা হয়েছে তার ইয়ত্তা নেই। এখন দুদককে দিয়ে আরেকটি কুৎসা রটনার নতুন অধ্যায় শুরু করল।

তিনি বলেন, যুক্তরাজ্যের বিদ্যমান আইনে আইনসিদ্ধ বিষয়ে বাংলাদেশ সরকারের আদালতের হস্তক্ষেপের কোনো এখতিয়ার নেই। বাংলাদেশে যে অপরাজনীতি চলছে, এটা তারই প্রতিফলন। জিয়া পরিবারের প্রতি সরকারের প্রতিহিংসার প্রতিফলন এটি। তারেক রহমানের নেতৃত্বে বিএনপি যেভাবে সুসংগঠিত হচ্ছে, সাংগঠনিক শক্তি বাড়ছে, তাতে সরকার ভীত হয়ে সম্পূর্ণ রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে কাল্পনিক মিথ্যা এ অভিযোগ সামনে এনেছে।