advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

আবাহনী-রূপগঞ্জের অঘোষিত ফাইনাল

২১ এপ্রিল ২০১৯ ০০:০০
আপডেট: ২১ এপ্রিল ২০১৯ ০৮:৫৩

সুপার লিগের আরও এক ম্যাচ বাকি। এর আগে আজ আবাহনী-রূপগঞ্জের ম্যাচটি যেন অঘোষিত ফাইনালে রূপ নিয়েছে। কেননা পয়েন্ট টেবিলে শীর্ষে থাকা রূপগঞ্জের অর্জন সর্বোচ্চ ২৪ পয়েন্ট। দ্বিতীয় অবস্থানে থাকা আবাহনীর অর্জন ২২ পয়েন্ট। আজ রূপগঞ্জকে হারাতে পারলে লিগের শিরোপা ধরে রাখার পথটা মসৃণ হয়ে যাবে আবাহনীর।

২৪ পয়েন্ট হবে তাদেরও। নেট রান রেটেও এগিয়ে দলটি। সুপার লিগের শেষ ম্যাচে আবাহনী-রূপগঞ্জ জয় পেলেও শিরোপাজয়ে এগিয়ে থাকতে পারে বর্তমান চ্যাম্পিয়নরাই। অন্যদিকে রূপগঞ্জ জিতে গেলে শিরোপা জয় নিশ্চিত হয়ে যাবে তাদের। শেষ ম্যাচটি তাদের জন্য হবে নিছক আনুষ্ঠানিকতার। দুদলের এমন মহাগুরুত্বপূর্ণ ম্যাচটি আজ বিকেএসপির মাঠে যে বাড়তি উত্তাপ ছড়াবে, তাতে সন্দেহ নেই।

রূপগঞ্জ দলের প্রধান কোচ আফতাব আহমেদ। এই প্রথম লিগের কোনো ক্লাবের হয়ে এই দায়িত্ব পালন করছেন তিনি। তার অধীনে শিরোপা জয়ের পথে রূপগঞ্জ। আজ শক্তিশালী প্রতিপক্ষ আবাহনীকে মোকাবিলা করবে তার দল। এ ম্যাচের আগে আফতাব জানান, চাপমুক্ত খেলবে তার শিষ্যরা। দুই পয়েন্ট অর্জন তাদের লক্ষ্য। যেভাবে দল খেলছে, তাতে আবাহনীর বিপক্ষে ভালো ফলের আশায় আফতাব।

আবাহনী দলে জাতীয় দলের ক্রিকেটারে ভরা। দারুণ ছন্দে থাকা দলটির জয়রথ থামাতে পারবে রূপগঞ্জ? প্রতিপক্ষ কারা, সেটি নিয়ে ভাবছেন না কোচ আফতাব। তাদের এক ও অভিন্ন লক্ষ্য দুই পয়েন্ট তোলার। গত ম্যাচে রূপগঞ্জের হয়ে আগুনে বোলিং করেছেন তাসকিন আহমেদ। এ ম্যাচেও তাসকিন ছন্দ ধরে রাখতে চাইবেন। কাগজে-কলমে আবাহনী শক্তিশালী হলেও দিনশেষে পারফরম্যান্সটাই মূল্যায়ন করতে চান মোহাম্মদ মিঠুন।

তিনি জানান, পারফরম্যান্সটাই সবাই দেখবে। আমরা ভালো ক্রিকেট খেলছি। আমরা আমাদের সাধারণ খেলাটাই খেলে যাচ্ছি। আমি বিশ্বাস করি, আমাদের সাধারণ খেলাটা খেলে যেতে পারলে আমরা তাদের (রূপগঞ্জ) হারাতে পারব। রূপগঞ্জের প্রত্যেকটি খেলোয়াড় সম্পর্কে ভালোই জানা মিঠুনদের। লিগজুড়ে ভালো ক্রিকেট খেলছে দলটি। পারফরম্যান্সটাই গুরুত্বপূর্ণ। দলে ভালো ক্রিকেটার থাকলেও যদি পারফরম্যান্স করা না যায়, তা হলে সবই বৃথা।

রূপগঞ্জের বিপক্ষে নিজেদের সেরা ক্রিকেটই উপহার দেবেন বলে জানান মিঠুন। আবাহনীর জার্সি গায়ে দুর্দান্ত খেলছেন সাইফউদ্দিন। রূপগঞ্জের বিপক্ষে গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচেও সাইফউদ্দিন জ্বলে উঠতে চাইবেন। মিঠুনও প্রতিম্যাচে রান পাচ্ছেন। অন্যদিকে সৌম্য সরকার রান পাচ্ছেন না। বিকেএসপির মাঠে নিজেকে স্বরূপে ফিরে পেতে চাইবেন সৌম্য।