advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

শ্রীলঙ্কায় হামলা : শেখ সেলিমের জামাতা আহত, নাতি নিখোঁজ

২১ এপ্রিল ২০১৯ ২১:৪৫
আপডেট: ২২ এপ্রিল ২০১৯ ১০:০৯
advertisement

শ্রীলঙ্কায় বর্বরোচিত বোমা হামলায় আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য শেখ ফজলুল করিম সেলিমের মেয়ে জামাই আহত হয়েছেন এবং নাতি নিখোঁজ রয়েছে বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

ব্রুনেই সফররত প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আজ রোববার স্থানীয় সময় সন্ধ্যায় এম্পায়ার অ্যান্ড কান্ট্রি ক্লাব হোটেলের বলরুমে প্রবাসী বাংলাদেশিদের দেওয়া সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে এ কথা বলেন। 

আজ সকালে ও দুপুরে দুই দফায় শ্রীলঙ্কার কলম্বো ও আশপাশে আট জায়গায় ভয়াবহ বোমা হামলায় এখন পর্যন্ত ২০৭ জন নিহত এবং ৪৫০ জন আহত হয়েছেন। এ ঘটনায় দেশটিতে কারফিউ জারি করা হয়েছে। বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম।

এই ভয়াবহ হামলার ঘটনায় শোক ও নিন্দা জানিয়েছেন বিশ্বনেতারা। ভারত, পাকিস্তান, যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, অস্ট্রেলিয়া, নিউজিল্যান্ডসহ বেশ কয়েকটি দেশের রাষ্ট্রপ্রধান এই ঘটনায় তীব্র নিন্দা জানান। 

শ্রীলঙ্কায় সন্ত্রাসী হামলার নিন্দা জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, এই ধরনের সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড, আসলে সন্ত্রাসী সন্ত্রাসীই, এদের কোনো ধর্ম নেই, এদের কোনো জাত নেই, এদের কোনো দেশ নেই, কিচ্ছু নেই। এরা সন্ত্রাসী। এদের বিরুদ্ধে সবাইকে সর্তক হতে হবে, সোচ্চার হতে হবে। কারণ এরা মানুষের জীবন নষ্ট করে, মানুষের জীবন ধ্বংস করে দেয়।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, আরেকটা দুঃখজনক ঘটনা হলো শেখ সেলিমের মেয়ে, তার জামাই ও দুই বাচ্চা নিয়ে শ্রীলঙ্কায় ছিল, সেখানে তারা রেস্টুরেন্টে খাচ্ছিল। সেখানে বোমা হামলা হয়েছে। জামাই আহত হয়ে হাসপাতালে, বাচ্চাটার এখনো কোনো খবর পাওয়া যাচ্ছে না। আপনারা দোয়া করেন।

সংসদ সদস্য শেখ সেলিম প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ফুপাতো ভাই। সেলিমের মেয়ে শেখ সোনিয়া তার স্বামী মশিউল হক চৌধুরী প্রিন্স ও দুই ছেলেকে নিয়ে বেড়াতে গেছেন শ্রীলঙ্কায়। তারা উঠেছেন কলম্বোর পাঁচ তারকা হোটেল সাংগ্রিলায়। সকালে তিনটি গির্জার পাশাপাশি যে তিনটি হোটেলে হামলা হয়েছিল, সাংগ্রিলা তার অন্যতম। বাকি দুটি হোটেল হলো কিংসবারি এবং সিনামোন গ্র্যান্ড হোটেল

পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম দুপুরে এক ব্রিফিংয়ে বলেন, বোমা হামলার ঘটনার পর থেকে এক শিশুসহ দুই বাংলাদেশির খোঁজ পাওয়া যাচ্ছে না। তবে তাদের নাম-পরিচয় তিনি ওই সময় প্রকাশ করেননি।