advertisement
Dr Shantu Kumar Ghosh
advertisement
Dr Shantu Kumar Ghosh
advertisement
advertisement

ক্ষমা চাইলেন রাহুল গান্ধী

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
২২ এপ্রিল ২০১৯ ১৬:১২ | আপডেট: ২২ এপ্রিল ২০১৯ ২৩:৫৬

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে ‘চোর’ হিসেবে সম্বোধন করায় সুপ্রিম কোর্টে ক্ষমা চাইলেন জাতীয় কংগ্রেসের সভাপতি রাহুল গান্ধী। নির্বাচনী প্রচারে এমন মন্তব্য করায় হলফনামা দিয়ে শীর্ষ আদালতে ক্ষমা চাইতে হলো কংগ্রেসের শীর্ষ এই নেতাকে।

তবে এমন ঘটনায় বিরোধীরা তার বক্তব্যের ভুল ব্যাখ্যা করেছেন বলে দাবি করেন রাহুল গান্ধী।অন্যদিকে সুপ্রীম কোর্টের এক শুনানিতে রাহুল গান্ধীর এমন বক্তব্যের কোনো উৎস খুঁজে পাননি।

কংগ্রেস সভাপতির এই মন্তব্যের পরই তার বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার অভিযোগ এনে সুপ্রিম কোর্টে মামলা করেন বিজেপি নেত্রী মিনাক্ষী লেখি। এই মামলার শুনানিতে সুপ্রিম কোর্ট স্পষ্ট করে দেয় যে, তারা কোথাও এমন কথা বলেনি যে ‘চৌকিদার নরেন্দ্র মোদী চোর হ্যায়’।

প্রসঙ্গত, গত বছরের ডিসেম্বরে ভারতের কথিত রাফায়েল বিমান চুক্তিতে নিয়ম বহির্ভূত কাজকর্মের অভিযোগ ওঠে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বিরুদ্ধে। সেই অভিযোগকে কেন্দ্র করে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে তীব্র বাগযুদ্ধ লেগে যায় কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধীর। শেষ পর্যন্ত এসব বিতর্কের মধ্যে চলতি বছরের ১০ এপ্রিল রাফায়েল মামলার রিভিউ পিটিশন মঞ্জ‍ুর করে শীর্ষ আদালত। ফাঁস হয়ে যাওয়া তথ্যের ভিত্তিতেও ফের শুনানি শুরু করা যায় বলে জানিয়ে দেয় সুপ্রিম কোর্ট।

এর পরিপ্রেক্ষিতেই রাহুল বলেন, ‘আমি প্রথম থেকেই বলছি, এবার সুপ্রিম কোর্টও মেনে নিলো যে, চৌকিদার নরেন্দ্র মোদি চোর হ্যায়।’

এর আগে গত ১৭ মার্চ ভারতের প্রধানমন্ত্রী নিজের নামের আগে চৌকিদার শব্দটি জুড়ে টুইটারে নিজের নতুন নামকরণ করেন ‘চৌকিদার নরেন্দ্র মোদি’। এরপর ভারতের মন্ত্রী ও বিজেপি নেতাদের মধ্যেও নিজের নামের সঙ্গে চৌকিদার যোগ করার হিড়িক পড়ে যায়। দেশের দুর্নীতি ও সামাজিক ব্যাধির বিরুদ্ধে নতুন উপাধি নিয়ে লড়াই করা নির্বাচনে কূটকৌশল হিসেবে নেয় বিজেপি। দুর্নীতির প্রশ্নে বিজেপির এমন কৌশলকে বিরোধী নেতা রাহুল গান্ধীও কাজে লাগাতে চেয়েছিলেন, যার প্রেক্ষাপটে শেষমেষ এক মন্তব্যে রাহুল গান্ধীকে ক্ষমা চাইতে হলো দেশের সর্বোচ্চ আদালতে।