advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

বাসের ধাক্কায় প্রাইভেট কার উঠল রিকশায়, নিহত ২

২৪ এপ্রিল ২০১৯ ০১:৪৮
আপডেট: ২৪ এপ্রিল ২০১৯ ০৮:৫৮
advertisement

রাজধানীর মৎস্যভবন মোড়ে সিগন্যাল অমান্য করে এগিয়ে যাওয়া স্বাধীন পরিবহনের একটি বাসের ধাক্কায় নিহত হয়েছেন রিকশার আরোহী ও চালক; আহত হয়েছেন দুজন। গতকাল সকালে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতদের মধ্যে রিকশাচালকের নাম মো. সুমন, বয়স ২৬ বছর। নিহত আরোহীও একই বয়সী; তবে তার পরিচয় জানা যায়নি। দুর্ঘটনায় আহত শরীফ ও নূর আলম ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। ময়নাতদন্তের জন্য লাশ দুটিও একই হাসপাতালের মর্গে পাঠিয়েছে পুলিশ। ঘাতক বাসের চালক নজরুল ইসলামকে আটক করা হয়। দুর্ঘটনার পর মৎস্য ভবন সড়ক দিয়ে কিছুক্ষণ যান চলাচল বন্ধ ছিল। পরে সড়ক থেকে দুর্ঘটনাকবলিত দুটি গাড়ি ও রিকশা সরিয়ে নিলে যান চলাচল স্বাভাবিক হয়।

ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী শাহবাগ ট্রাফিক জোনের সার্জেন্ট মো. আলী আবু জাফর জানান, গতকাল সকাল সোয়া ৭টার দিকে শাহবাগের দিক থেকে স্বাধীন পরিবহনের একটি বাস প্রেসক্লাবের দিকে যাচ্ছিল। বাসটি মৎস্য ভবন মোড়ে পৌঁছলে ট্রাফিক সিগন্যাল না মেনে এগিয়ে যায় বাসটি। এ সময় বাসটি সামনের প্রাইভেটকারকে সজোরে ধাক্কা দেয়। এতে প্রাইভেটকারের সামনে থাকা আরও একটি প্রাইভেটকার ও রিকশার ওপর গিয়ে পড়ে। গাড়ির চাপায় রিকশাযাত্রী ও রিকশাচালক ঘটনাস্থলেই মারা যান। বাসের ধাক্কায় দুমড়ে-মুচড়ে যায় প্রাইভেটকার দুটি ও বাসটির সামনের অংশ।

রমনা থানার পরিদর্শক (তদন্ত) জহিরুল ইসলাম বলেন, দুর্ঘটনার শিকার বাস দুটির একটি প্রতিষ্ঠানের কর্মীদের বহনকারী বাস ও অন্যটি স্বাধীন পরিবহনের। বাস বা প্রাইভেটকারে থাকা কেউ মারা যাননি। বাসের হেলপার গুরুতর আহতাবস্থায় ঢামেক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

প্রাথমিক তদন্তে জানা গেছে, ট্রাফিক সিগন্যাল অমান্য করে দ্রুতগতির বাস চালক ওভারটেক করার কারণেই দুর্ঘটনাটি ঘটেছে। যদিও আটক বাসচালক জানিয়েছেন বাসটি ব্রেকফেল করেছে।

গতকাল দুপুরে ঢামেক মর্গে রিকশাচালক সুমনের মরদেহ শনাক্ত করেন তার স্ত্রী শান্তা ও বোন জেসমিন। তারা জানান, গতকাল সকাল ৬টায় বাসা থেকে বের হয় সুমন। পুলিশের কাছ থেকে খবর পেয়ে তারা হাসপাতালে এসেছেন। সুমন সপরিবারে শাহজাহানপুর রেলওয়ে কলোনিতে ভাড়া থাকতেন। তার গ্রামের বাড়ি টাঙ্গাইলের ধনবাড়ি। তারা বাসের চালকের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেন।

advertisement