advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

রংপুর ডিসির জাল স্বাক্ষরে ৪০০ অস্ত্রের লাইসেন্স

রংপুর প্রতিনিধি
২৬ এপ্রিল ২০১৯ ০০:০০ | আপডেট: ২৫ এপ্রিল ২০১৯ ২৩:২৭
রংপুর ডিসি অফিস থেকে জেলা প্রশাসকের সই জাল ও ভূয়া পুলিশ ভেরিফিকেশন দিয়ে কাগজপত্র তৈরি করে চারশ অস্ত্রের লাইসেন্স প্রদান ও নবায়নের ঘটনায় চার্জশিটভূক্ত ৬০ লাইসেন্সগ্রহণকারীর জামিন আবেদন না মঞ্জুর করেছে আদালত। গতকাল বৃহস্পতিবার রংপুর সিনিয়র জেলা ও দায়রা জজ আদালতে আত্মসমর্পন করে জামিন প্রার্থনা করেন তারা। রংপুর জজ আদালাতের পিপি আব্দুল মালেক জানান, নিজ নিজ আইনজীবীর মাধ্যমে দুপুরে চাঞ্চল্যকর এই অস্ত্র মামলায় রংপুর সিনিয়র জেলা ও দায়রা জজ আদালতে হাজির হয়ে জামিন প্রার্থনা করেন দেশের বিভিন্ন এলাকার ৬০ ব্যক্তি। যারা অর্থের বিনিময়ে ওই ভূয়া অস্ত্রের লাইসেন্স নিয়েছিলেন। বিকেল চারটায় আদালতের বিচারক রাশেদা সুলতানা শুনানী শেষে তাদের জামিন আবেদন না মঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন। তারা হাইকোর্ট থেকে অন্তর্বর্তিকালীন জামিনে ছিলেন। জামিন না মঞ্জুর হওয়াদের সবাই সেনাবাহিনীসহ বিভিন্ন সামরিক, আধা সামরিক বাহিনীর সদস্যসহ বিভিন্ন পদের অবসরপ্রাপ্ত কর্মকর্তা। ২০০৩ সাল থেকে ২০১৫ সালের মধ্যে জিএম শাখার অফিস সহকারী সামসুল ইসলাম ও তার সিন্ডিকেট রংপুর ডিসিদের সই জাল করে ব্যাকডেটে চারশর বেশি আগ্নেয়াস্ত্রের লাইসেন্স দেন। এর মাধ্যমে সামসুল কয়েক কোটি টাকার অবৈধ সম্পদের মালিক হয়েছেন। ঘটনাটি প্রকাশ হওয়ায় গত ১৮ মে অফিসে অভিযান চালিয়ে সামসুলের আলমিরা থেকে ১৫টি ভূয়া আগ্নেয়াস্ত্রের লাইসেন্স, ১৫টি ভূয়া লাইসেন্সের ভলিউম, সাত লাখ টাকা, ১১ লাখ টাকার এফডিআর ও ২ লাখ টাকার সঞ্চয়পত্র উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় ডিসি অফিস ও দুদক দুটি মামলা করে। ২৮১ জনের নামে চার্জশিট দেওয়া হয় আদালতে।