advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

যুক্তরাষ্ট্রের আলাবামায় গর্ভপাত ‘সম্পূর্ণ’ নিষিদ্ধ

১৫ মে ২০১৯ ১৩:২৭
আপডেট: ১৫ মে ২০১৯ ১৩:২৭
advertisement
advertisement

যুক্তরাষ্ট্রের আলাবামা অঙ্গরাজ্যে প্রায় সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ করা হয়েছে গর্ভপাতকে। এখন থেকে ধর্ষণের কারণে গর্ভবতী হলে কিংবা মায়ের স্বাস্থ্য বিপর্যয় ঠেকাতেই কেবল সেখানে গর্ভপাত করানো যাবে। 

গতকাল মঙ্গলবার অঙ্গরাজ্যটির সিনেটে এই বিলটি পাস হয়।  কিন্তু তা চূড়ান্ত করার জন্য রাতে তা রিপাবলিকান গভর্নর কে লভের কাছে পাঠানো হয়। তিনি এখনো জানাননি এতে স্বাক্ষর করবেন কিনা। 

সিনেটে গর্ভপাতকে সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ করার পক্ষে ভোট দেন ২৫ জন এবং বিপক্ষে ভোট দেন ৬ জন আইনপ্রণেতা।

মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনএন বলছে, বিলে আরও উল্লেখ করা হয়েছে যে চিকিৎসক নারীর গর্ভপাত কাজে অংশ নেবেন তাকে আজীবন কারাদণ্ড পর্যন্ত দেওয়া হবে। 

এর আগে তাকেও গর্ভপাতের বিরুদ্ধে কঠিন অবস্থান নিতে দেখা গেছে। অধিকারকর্মীরা আশা করছেন, এটি ১৯৭৩ সালের আদালতের ঘোষণা যেটি গর্ভপাতকে বৈধ করেছে সেটিকে চ্যালেঞ্জ করবে।  এর আগে এই বিলটি আলাবামার হাউজ অব রিপ্রেজেন্টেটিভে ৭৪-৩ ভোটে পাস হয়েছিল।

যুক্তরাষ্ট্রে নারীদের জাতীয় সংস্থা ইতিমধ্যে এই নিষেধাজ্ঞাকে অসাংবিধানিক বলে আখ্যায়িত করেছে।  তাদের দাবি, গর্ভপাত বিরোধী রাজনৈতিক প্রার্থীদের সুবিধা করে দিতেই এই আইন করা হচ্ছে।  একে আলাবামা ও সমগ্র যুক্তরাষ্ট্রের নারীদের জন্য একটি কালো দিন হিসেবে ঘোষণা করেছে নারী সংগঠনগুলো।

তবে বিলের পক্ষেও সরব আছেন রাজনীতিবিদরা।  রিপাবলিকান আইনপ্রণেতা টেরি কলিনস বলেন, ‘আমাদের বিলটি শুধু বলতে চাইছে যে, গর্ভে থাকা শিশুটিও একজন মানুষ।’

এর বিরোধিতা করে ডেমোক্রেট দলের সিনেটর ববি সিংলেটন বলেন, ‘এই বিল ডাক্তারদের অপরাধী সাব্যস্থ করবে এবং পুরুষদের অনুমতি দেবে নারীদের শরীরের বিষয়ে কথা বলতে।’

advertisement