advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

৩ ছাত্রীকে মারধর-শ্লীলতাহানি, মামলা হলেও গ্রেপ্তার হয়নি কেউ

মৌলভীবাজার প্রতিনিধি
১৫ মে ২০১৯ ১৬:১১ | আপডেট: ১৫ মে ২০১৯ ১৬:১১
advertisement

মৌলভীবাজারে তিন কলেজছাত্রীকে শারীরিকভাবে আঘাত ও শ্লীলতাহানির অভিযোগে একটি মামলা করা হয়েছে। গত সোমবার সাতজনকে আসামি করে মামলাটি করা হলেও এখন পর্যন্ত কাউকে গ্রেপ্তার করা হয়নি।

মামলার আসামিরা হলেন-নাভেদ, সায়েম, মুন্না, লোকমান ও অজ্ঞাত আরও তিনজন। অবিলম্বে এসব দোষীদের শাস্তির দাবি জানিয়েছেন শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা।

জানা যায়, মৌলভীবাজার সরকারি কলেজ হোস্টেলের পাশে বড়বাড়ী এলাকায় একটি মেসে থাকেন মৌলভীবাজার সরকারি কলেজের দুই ছাত্রী এবং সরকারি মহিলা কলেজের এক ছাত্রী। তারা কলেজ থেকে যাওয়া-আসার পথে প্রায়ই তাদেরকে উত্ত্যক্ত করে আসছিল বাড়ির মালিকের ভাতিজা নাভেদসহ কয়েকজন বখাটে।

আর এর প্রতিবাদ করে ওই তিন ছাত্রী গত সোমবার বিকেলে নাভেদের বাসায় নালিশ দেয়। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে ওই ছাত্রীদের মারধর ও লাঞ্চিত করে নাভেদসহ তার সহপাঠীরা।

ছাত্রীদের মধ্যে একজনের চুলের মুঠি ধরে প্রহার করা হয়, আরেকজনের গলা টিপে ধরা হয় এবং অন্যজনকে মাটিতে ফেলে আঘাত করা হয়। এ ছাড়া প্রত্যেকের স্পর্শকাতর স্থানে হাত দিয়ে শ্লীলতাহানি করা হয় বলে অভিযোগ করে ওই ছাত্রীরা।

মৌলভীবাজার মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আলমগীর হোসেন জানান, ওই ছাত্রীদের ওপর শারীরিক আঘাত ও শ্লীলতাহানির অভিযোগে সোমবার রাতে শিশু ও নারী নির্যাতন দমন আইনে মামলা করেছেন তাদের অভিভাবকরা। আসামিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা অব্যাহত আছে বলেও জানিয়েছেন তিনি।

advertisement