advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

কক্সবাজারে নারী ও শিশুসহ আরও ৬৫ রোহিঙ্গা উদ্ধার

নিজস্ব প্রতিবেদক,কক্সবাজার ও টেকনাফ প্রতিনিধি
১৬ মে ২০১৯ ০০:০০ | আপডেট: ১৬ মে ২০১৯ ০৯:১২
advertisement

সাগরপথে মালয়েশিয়া পাচারের উদ্দেশে জড়ো করা আরও ৬৫ রোহিঙ্গা নারী ও শিশুকে উদ্ধার করেছে পুলিশ। এর মধ্যে কক্সবাজার শহরের দরিয়ানগর বড়ছড়া এলাকা থেকে গত মঙ্গলবার রাত সাড়ে ১২টার দিকে ৩৪ জনকে এবং টেকনাফের নোয়াখালী পাড়া এলাকা থেকে গতকাল ভোরে ৩১ জনকে উদ্ধার করা হয়। উদ্ধার হওয়াদের মধ্যে ১৮ পুরুষ, ৩৫ নারী ও ১২ শিশু রয়েছে।

কক্সবাজার সদর থানার ওসি ফরিদ উদ্দিন খোন্দকার জানান, মঙ্গলবার রাতে সাগরপথে মালয়েশিয়া পাচারের উদ্দেশে কিছু সংখ্যক লোকজনকে জড়ো করা হচ্ছিল। গোপন খবরের ভিত্তিতে পুলিশের একটি দল তাৎক্ষণিক অভিযান চালায়। টের পেয়ে দালাল চক্রের লোকজন সটকে পড়লেও ৩৪ রোহিঙ্গাকে উদ্ধার করা হয়। সম্প্রতি সক্রিয় হয়ে ওঠা সংঘবদ্ধ মানবপাচারকারী চক্রের সদস্যরা উখিয়া ও টেকনাফের বিভিন্ন শরণার্থী ক্যাম্প থেকে এসব রোহিঙ্গাকে নিয়ে এসে সাগরপথে মালয়েশিয়া পাচারের উদ্দেশে জড়ো করছিল। তাদের থানা হেফাজতে রাখা হয়েছে।

পরে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে স্ব স্ব ক্যাম্পে পাঠানোর ব্যবস্থা করা হবে বলেও জানান ওসি। এর আগে গত ১২ মে রাতে টেকনাফের বাহারছড়া থেকে ৮ জন, মহেশখালীর কালারমারছড়া থেকে ১৪ জন ও ১১ মে মহেশখালীর পানিরছড়া থেকে ১২ জন রোহিঙ্গাকে আটক করে পুলিশ। তারা সাগরপথে মালয়েশিয়া যাওয়ার চেষ্টা করছিল। টেকনাফ মডেল থানার ওসি (তদন্ত) এবিএমএস দোহা জানান, টেকনাফের নোয়াখালী পাড়া এলাকায় দিয়ে সাগরপথে মালয়েশিয়া পাচারের জন্য লোকজনকে জড়ো হচ্ছে খবর পেয়ে পুলিশের একটি দল ওই এলাকায় অভিযান যান।

এ সময় সেখান থেকে ৩১ রোহিঙ্গাকে আটক করা হয়। তাদের বিভিন্ন রোহিঙ্গা শিবির থেকে নিয়ে আসা হয়েছে। সাগরপথে মালয়েশিয়া পাচারের জন্য তাদের জড়ো করা হয়েছিল। তাদের থানায় রাখা হয়েছে, ঊর্ধ্বতন কতৃপক্ষের সঙ্গে কথা বলে আইনি পদক্ষেপ নেওয়া হবে।

advertisement