advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

বুবলী-ববিকে নিয়ে ফাঁকা মাঠে শাকিব

ফয়সাল আহমেদ
১৬ মে ২০১৯ ০০:০০ | আপডেট: ১৬ মে ২০১৯ ০০:৫৩
advertisement
advertisement

রোজা শুরু হওয়ার আগ থেকেই ঢাকার সিনেমাপাড়ায় এবার বইতে শুরু করেছে ঈদের হাওয়া। অথচ গতবার ঈদের চার দিন আগেও ঠিক হয়েছিল না কয়টি চলচ্চিত্র মুক্তি পাবে। কিন্তু এবার এরই মধ্যে প্রায় ছবি মুক্তির তালিকা নিশ্চিত হয়ে গেছে।

এর কারণ হিসেবে চলচ্চিত্রসংশ্লিষ্টরা বলছেন, মন্দার এই বাজারে এখন ঈদ-ই একমাত্র ভরসা। তাই আগে থেকেই ছবির তালিকা প্রায় চূড়ান্ত হয়ে গেছে। সবচেয়ে বড় বিষয়, এ বছর এখন পর্যন্ত এমন কোনো ছবি মুক্তি পায়নি; যা দর্শক টানতে পেরেছে। তাই ঈদের দিকে তাকিয়ে আছেন প্রযোজকরা। তবে অন্যান্য বছরের মতো এবার খুব বেশি ছবি মুক্তি পাচ্ছে না।

ঈদে মুক্তির জন্য এখন পর্যন্ত চূড়ান্ত হয়েছে তিনটি ছবি। এগুলো হলোÑ ‘পাসওয়ার্ড’, ‘নোলক’ ও ‘আবার বসন্ত’। আশার বিষয় হচ্ছে, এর মধ্যে দুই ছবি প্রযোজকদের ভরসার কেন্দ্রবিন্দু সুপারস্টার শাকিব খান। তাই লগ্নিকৃত অর্থ তুলে কিছু লাভের আশা করছেন প্রযোজকরা। আবার শোনা যাচ্ছে, আইনি জটিলতা না থাকলে ঈদে মুক্তির তালিকায় যোগ হতে পারে কলকাতার ছবি ‘শুরু থেকে শেষ’।

এ ছবির নায়ক কলকাতার জিৎ। দীর্ঘ দুই বছর পর তিনি এ ছবির মাধ্যমে জুটি বেঁধেছেন কোয়েল মল্লিকের সঙ্গে। এটি সাফটা চুক্তিতে বাংলাদেশে আমদানি করার চেষ্টা করছে শাপলা মিডিয়া। ঈদে মুক্তির তালিকায় থাকা ছবির মধ্যে ‘নোলক’ বিভিন্ন কারণে আগে থেকেই আলোচিত। সাকিব সনেট পরিচালিত এ ছবিতে শাকিব খানের বিপরীতে দর্শক দেখতে পাবেন ববিকে।

এরই মধ্যে ছবির প্রচারণায় সময় দিচ্ছেন ববি হক। তিনি বলেন, “ভালো ছবি দর্শক সব সময় ঈদে দেখতে চান। ‘নোলক’ তেমনই একটি ছবি। এ ছবির গল্পটি আলাদা। দর্শকের এর গান-গল্প ভালো লাগবে।” ঈদে শাকিব খানের ‘পাসওয়ার্ড’ও মুক্তি পাচ্ছে। এতে তার বিপরীতে থাকছেন শবনম বুবলী। এতে ‘নোলক’ ব্যবসায়িক দিক থেকে ক্ষতিগ্রস্ত হবে কিনা জানতে চাইলে ববি বলেন, ‘ঈদে সিনেমার প্রতিযোগিতা নিয়ে ভাবছি না।

কারণ এরই মধ্যে ইউটিউবে এ ছবির টিজার ও গান দর্শক বেশ পছন্দ করেছেন। এ ছবির ফ্যামিলি ড্রামা দেখার পর তারা আনন্দ নিয়ে হল থেকে ফিরবেন বলে আশা করছি।’ ছবিতে শাকিব-ববি ছাড়া আরও অভিনয় করেছেন কলকাতার রজতাভ দত্ত, বাংলাদেশ থেকে তারিক আনাম খান, ওমর সানী-মৌসুমীসহ অনেকে। ছবিটি প্রযোজনা করেছে বি হ্যাপি এন্টারটেইনমেন্ট। এদিকে ‘পাসওয়ার্ড’ ছবির মাধ্যমে দীর্ঘ পাঁচ বছর পর প্রযোজনায় ফিরেছেন ঢাকাই ছবির এই নায়ক। শুটিংয়ের আগে থেকেই ছবিটি নিয়ে শাকিব খানের ভেতরে ছিল চাপা উত্তেজনা।

সম্প্রতি শাকিব খানের অফিশিয়াল পেজ থেকে প্রকাশিত হয় ছবিটির প্রথম লুক। তাতে এক পোস্টারে দেখা যায় তিন শাকিবকে। ডিজিটাল আর্টে করা এ পোস্টারটিতে শাকিবের হাতে দেখা গেছে একটি পেনড্রাইভ। ছবিটি পরিচালনা করেছেন মালেক আফসারী। এ ছবির সংলাপ অংশের শুটিং ও ডাবিং সম্পন্ন হয়েছে। তবে গানের চিত্রায়ণের জন্য বর্তমানে তুরস্কে আছেন শাকিব খান ও শবনম বুবলী। সেখানে তিনটি রোমান্টিক গানের শুটিং হবে। নায়িকা বুবলী বলেন, ‘তুরস্কের ইস্তাম্বুল শহরটি বেশ সুন্দর। সেখানে চোখ ধাঁধানো সব লোকেশন।

আমাদের গানের চিত্রায়ণে সেসব লোকেশন ফুটে উঠবে।’ ঈদে শাপলা মিডিয়ার ‘শাহেনশাহ’ ছবিটি মুক্তি দেওয়ার কথা ছিল। শাকিব খানের দুটি ছবি মুক্তির মিছিলে থাকায় এ ছবির মুক্তি পিছিয়ে দেওয়া হয়েছে। এর বদলে আমদানি করতে চাচ্ছেন জিতের ছবি। এ বিষয়ে শাপলা মিডিয়ার কর্ণধার সেলিম খান বলেন, ‘শাকিব খানের দুটি ছবি আগে থেকেই মুক্তির তালিকায় আছে ঈদের জন্য।

তাই আমাদের প্রযোজনার ছবিটি সরিয়ে নিয়েছি। এখন চেষ্টা করছি কলকাতার একটি ছবি নিয়ে আসার। আমাদের ম্যানেজার এখন কলকাতা আছেন। যদি আইনি কোনো জটিলতা না থাকে, তবে হয়তো জিৎ-কোয়েলের ছবিটিও ঈদে মুক্তি পাবে। আমরা কোনো প্রকার ঝামেলা সৃষ্টি করতে চাই না। আদালত যদি ছবিটি মুক্তির অনুমতি দেন, তবেই আমরা ছবিটি আমদানি করব।’ ‘শেষ থেকে শুরু’ ছবির প্রযোজক জিৎ নিজেই। তিনিও চাচ্ছেন তার ছবিটি ঈদে বাংলাদেশে মুক্তি পাক। বাণিজ্যিক ঘরানার এসব ছবির বাইরে এবার ঈদে মুক্তি পাবে ভিন্নধর্মী গল্পের ‘আবার বসন্ত’।

অনন্য মামুন পরিচালিত ছবিটির এরই মধ্যে শুরু হয়েছে হল বুকিংয়ের কাজ। ছবির গল্প প্রসঙ্গে পরিচালক বলেন, ‘আমার এ ছবির মধ্যে আমি একজন বাবার একাকিত্বের গল্প বলার চেষ্টা করেছি। বাবা অনেক আদর করে তার সন্তানকে বড় করেন। একটা সময় সন্তান নিজের কাজে ব্যস্ত হয়ে যায়। বাবার তেমন একটা খবর রাখার সময় পায় না। এটা একজন বাবার জন্য অনেক কষ্টের।

আশা করি, সবার কাছে ছবিটি ভালো লাগবে।’ ছবিটিতে অভিনয় করেছেন গুণী অভিনেতা তারিক আনাম খান এবং এ প্রজন্মের মডেল-অভিনেত্রী অর্চিতা স্পর্শীয়া। বিভিন্ন চরিত্রে আরও অভিনয় করেছেন ইমতু রাতিশ, মিজান, মনিরা মিঠু, মুকিত জাকারিয়া, আনন্দ খালেদ, নুসরাত পাপিয়া প্রমুখ। ছবিটি প্রযোজনা করেছে ট্যাম মাল্টিমিডিয়া। ডিজিটাল পার্টনার লাইভ টেকনোলজিস লিমিটেড।

advertisement