advertisement
Azuba
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

উড়ছেন আসিফ

তারেক আনন্দ
১৬ মে ২০১৯ ০০:০০ | আপডেট: ১৬ মে ২০১৯ ০১:০৩
advertisement

সংগীতের আকাশে উড়ছেন গায়ক আসিফ আকবর। কদিন পর পরই তার কণ্ঠে শ্রোতারা পাচ্ছেন নতুন গান। এ বছর শ্রোতাদের উপহার দেবেন ১৩০ গানÑ সেই ঘোষণা বছর শুরুতেই দিয়েছেন তিনি। শুধু কথার কথাই নয়, যেন বাস্তবের পথেই হাঁটছেন। রাত-দিন পরিশ্রম করে যাচ্ছেন বাংলা গানের এই যুবরাজ। শুধুই কি কণ্ঠ দেওয়া? সেই সঙ্গে তিনি পারফর্ম করছেন মিউজিক ভিডিওতে।

নিজেকে বিভিন্ন ক্যারেক্টারে উপস্থাপন করছেন মিউজিক ভিডিওর মাধ্যমে, যা শ্রোতাদের কাছে হচ্ছেন বরাবরই প্রশংসিত। আসিফ আকবর থেমে যাওয়ার পাত্র নন। তিনি চ্যালেঞ্জ দিতেও যেমন জানেন, চ্যালেঞ্জ নিতেও। তার বর্তমান চ্যালেঞ্জ নতুন গানের সঙ্গে। তার চ্যালেঞ্জ শ্রোতাদের নতুন গান উপহার দেওয়ার জন্য। তা না হলে কি এ বছর ১৩০ গান উপহার দেওয়ার চ্যালেঞ্জ কেউ নেন?

এটি একমাত্র আসিফ আকবরের পক্ষেই সম্ভব। এই যে এত এত কাজ করছেন, ক্লান্তি আসে না? আসিফ আকবর বলেন, ‘আমি ছুটে চলা মানুষ। আমার কাছে ক্লান্তি বলে কিছু নেই। আমি জানি, আসিফ আকবরের কাছে শ্রোতারা গানই চায়। অগণিত শ্রোতার ভালোবাসার ঋণ আমাকে শোধ করতে হবে গান দিয়েই। পরিকল্পনা ছাড়া আমি কিছু করি না। পরিকল্পনামাফিক কাজ করে যাচ্ছি।

প্রত্যেক মানুষের লক্ষ্য যদি অবিচল থাকে, তা হলে তিনি সফল হবেনই। আমি আমার লক্ষ্য ঠিক রেখে কাজ করে যাচ্ছি। এখন সামনে তাকানোর সময়। যতদিন নিঃশ্বাস আছে প্রাণে, ততদিন গেয়ে যাব।’ আসিফ আকবর ঠিকই বলেছেন। এ বছর আর কোনো গায়কের এতগুলো গান প্রকাশ হয়নি। এরই মধ্যে তিনি ঈদের গান প্রকাশও শুরু করেছেন। ৮ মে সুরঞ্জলি থেকে প্রকাশ হয় ‘চিঠি’ গানের লিরিক্যাল ভিডিও।

‘চিঠির উত্তর দিলি না, মনের খবর নিলি না, আমি কি তোর কোনোদিনও আপন ছিলাম না’Ñ চমৎকার কথার গানটি লিখেছেন ইথুন বাবু। সুর ও সংগীতায়োজনও তার। ১১ মে এসএস মাল্টিমিডিয়ার ইউটিউব চ্যানেলে প্রকাশ হয় ‘যা পাখি’ গানের মিউজিক ভিডিও। আসিফের সঙ্গে এতে দ্বৈত কণ্ঠ দিয়েছেন পাপড়ি। মিউজিক ভিডিওতে আসিফের সঙ্গে মডেল হয়েছেন জান্নাতুল নাঈম এভ্রিল।

মাহমুদ জুয়েলের কথা ও সুরে সংগীতায়োজন করেছেন জেকে মজলিশ। ঈদের গানগুলো প্রসঙ্গে আসিফ আকবর বলেন, প্রতিটি গানেরই কথা ও সুরে ভিন্নতা খুঁজে পাবেন শ্রোতারা। আর ভিডিওগুলোও দর্শক উপভোগ করবেন বলে আমার বিশ্বাস। ঈদ উপলক্ষে আরও বেশ কিছু গান প্রকাশ হবে। ঈদের পরও টানা গান প্রকাশের ধারাবাহিকতাটা অব্যাহত থাকবে। সবাই আমার সঙ্গে থাকবেন আর দোয়া করবেন।

আসলে আমি কাজে বিশ্বাসী। কাজের মধ্যে থাকলে আমার শরীর ও মন দুটোই ভালো থাকে। শ্রোতারা এ বছর এরই মধ্যে আমার গাওয়া গানগুলো সাদরে গ্রহণ করেছেন। এরই মধ্যে প্রকাশ হয়েছে ধ্রুব মিউজিক স্টেশনের ব্যানারে ‘লাশ’। কথা ও সুর করেছেন প্রিন্স মাহফুজ, সংগীতায়োজন করেছেন মীর মাসুম। ইথুন বাবুর কথা, সুর ও সংগীতে ধ্রুব মিউজিক স্টেশনের ব্যানারে ‘চুপচাপ কষ্টগুলো’, পাপড়ির সঙ্গে দ্বৈত গান ‘চল পালাই’। এটির কথা ও সুর করেছেন মাহমুদ জুয়েল।

এসএস মিউজিক ক্লাব থেকে প্রকাশ হয়েছে মেহেদী হাসান লিমনের কথা ও মিলনের সুরে ‘তুমি নামে কেউ নেই’, সাউন্ডটেক থেকে প্রকাশ হয়েছে ডলি সায়ন্তনীর সঙ্গে দ্বৈত গান ‘মন হয়ে যায় ভালো’। এটির কথা লিখেছেন প্রদীপ সাহা, সুর করেছেন অভি সুর করেছেন অভি আকাশ, সংগীতায়োজন করেছেন মুশফিক লিটু। এইচএম রিপনের কথায়, অমিত চ্যাটার্জির সুর সংগীতে ‘বস’। যুবরাজের কণ্ঠে গান প্রকাশ অব্যাহত থাকুক, উড়তে থাকুক সংগীতের আকাশেÑ এ প্রত্যাশা তার ভক্ত-অনুরাগীদের।

advertisement