advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

শিগগির শৃঙ্খলা ফিরবে

নিজস্ব প্রতিবেদক
২০ মে ২০১৯ ০০:০০ | আপডেট: ২০ মে ২০১৯ ০৯:২২

সড়ক পরিবহন খাতের নৈরাজ্য নিয়ে বিআরটিএর চেয়ারম্যান মশিয়ার রহমান বলেছেন, গণপরিবহনে বিশৃঙ্খলা ঠেকাতে সরকার বেশ কটি পদক্ষেপ নিয়েছে। সে অনুযায়ী কাজ করছে বিআরটিএ। রাজধানীতে বাস-মিনিবাসের সিটিং সার্ভিস সমস্যা সমাধানে কমিটি গঠন করা হয়। সেখানে বুদ্ধিজীবী-সংবাদকর্মী, পরিবহন বিশেষজ্ঞ সবাই ছিলেন।

তাদের সুপারিশের ভিত্তিতে গঠিত প্রতিবেদন বিআরটিএ পাঠিয়েছে মেট্রো আরটিসিতে (রিজিওনাল ট্রান্সপোর্ট কমিটি)। এটির প্রধান ডিএমপি কমিশনার। তারাই চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবেন। আর অতিরিক্ত ভাড়া আদায়, গন্তব্য অনুযায়ী যেতে না চাওয়ার অপরাধে বিআরটিএর ভ্রাম্যমাণ আদালত অভিযান চালাচ্ছে। ১৩ নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের মধ্যে ১০ জনই ঢাকায় দায়িত্ব পালন করেন। বাকি তিনজন চট্টগ্রাম মহানগরীতে দায়িত্বপ্রাপ্ত।

মোবাইলকোর্ট ছাড়াও পুলিশ নিয়মিত ব্যবস্থা নিচ্ছে। গতকাল আমাদের সময়কে তিনি এসব কথা বলেন। তিনি বলেন, গণপরিবহনে স্বস্তি ফিরিয়ে আনতে সব পদক্ষেপ নিচ্ছে সরকার। শিগগির শৃঙ্খলা ফিরবে। সুফল পাবে যাত্রীসাধারণ। মশিয়ার রহমান বলেন, অ্যাপভিত্তিক যাত্রী পরিবহনের ব্যপারে কাজ চলছে। এখনো আনুষ্ঠানিক অনুমোদন মেলেনি। এর পর নিয়ম না মানলে ব্যবস্থা নেবে বিআরটিএ।

তিনি বলেন, বিআরটিএর জনবল সংকট কমে যাবে শিগগির। বিদ্যমান ৮২৩ জনবলের সঙ্গে আরও ৩ হাজার ৬০০ জনবল নিয়োগের প্রস্তাব পাঠানো হয়েছে সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়ে। সেখান থেকে প্রস্তাবটি গেছে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ে। এটির অনুমোদন হলে মনিটরিং এবং সেবা দুটোই বাড়বে পরিবহন খাতে। মোটকথা, গণপরিবহনে স্বস্তি ফিরিয়ে আনতে সব পদক্ষেপ নিচ্ছে সরকার।