advertisement
Azuba
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

সাবেক এমপি আউয়ালকে দুদকে তলব

নিজস্ব প্রতিবেদক
২০ মে ২০১৯ ০০:০০ | আপডেট: ২০ মে ২০১৯ ০৯:৩৫
advertisement

দুর্নীতির অভিযোগে পিরোজপুর-১ আসনের সরকারদলীয় সাবেক সাংসদ একেএমএ আউয়ালকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তলব করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। গতকাল তাকে তলব করে দুদকের উপপরিচালক সৈয়দ আহমেদ একটি চিঠি পাঠিয়েছেন। আগামী ২৩ মে সকাল ৯টায় রাজধানীর সেগুনবাগিচায় দুদকের প্রধান কার্যালয়ে তাকে হাজির হতে বলা হয়েছে ওই চিঠিতে। কমিশনের উপপরিচালক (জনসংযোগ) প্রণব কুমার ভট্টাচার্য এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

দুদকের চিঠিতে বলা হয়, একেএমএ আউয়ালের বিরুদ্ধে ক্ষমতার অপব্যবহার, বিভিন্ন অনিয়ম-দুর্নীতি, নিয়োগবাণিজ্য, অবৈধভাবে সেতু-ফেরিঘাট ইজারা দেওয়াসহ টেন্ডারবাণিজ্যের মাধ্যমে জ্ঞাত আয়বহির্ভূত সম্পদ অর্জনের অভিযোগ রয়েছে। দুদক সূত্র জানায়, পিরোজপুরে ২০০৮ থেকে ২০১৮ সাল পর্যন্ত দুই মেয়াদে স্থানীয় সরকার প্রকৌশল বিভাগে প্রায় ৮০০ কোটি টাকার কাজ হয়েছে। সব কাজে ১০ শতাংশ কমিশন নেন তৎকালীন এমপি আউয়াল। একইভাবে গণপূর্ত, শিক্ষা, প্রকৌশল অধিদপ্তর, পানি উন্নয়ন বোর্ড, সড়ক ও জনপথ বিভাগে শত শত কোটি টাকার কাজেও সাংসদের জন্য ১০ শতাংশ কমিশন রেখে দরপত্র হয়।

আউয়াল এমপি নির্বাচিত হওয়ার পর তার স্ত্রী লায়লা পারভীন ঠিকাদারিতে জড়ান। মেসার্স বুশরা এন্টারপ্রাইজ ও মেসার্স সুভাষ এন্টারপ্রাইজ নামে দুটি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের নামে সড়ক ও জনপথ বিভাগ, স্থানীয় সরকার প্রকৌশল বিভাগে একচেটিয়াভাবে ঠিকাদারি কাজ নেওয়া হয়। এর বাইরে জেলায় শিক্ষা, পুলিশ ও স্বাস্থ্য বিভাগে কয়েক হাজার নিয়োগ হয়েছে।

এসব নিয়োগেও ঘুষ গ্রহণের অভিযোগ সাবেক এ এমপির বিরুদ্ধে। পিরোজপুর-১ আসনে ২০০৮ ও ২০১৪ সালে পরপর দুবার আওয়ামী লীগ থেকে প্রার্থী হয়ে জয় পান একেএমএ আউয়াল। তবে ২০১৮ সালের ৩০ ডিসেম্বরের নির্বাচনে তিনি মনোনয়ন পাননি। তার আসনে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন বর্তমান গৃহায়ণ ও গণপূর্তমন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম।

advertisement