advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

মোদির ধ্যানরত গুহায় ছিল আধুনিক সব ব্যবস্থা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
২০ মে ২০১৯ ১১:০৩ | আপডেট: ২০ মে ২০১৯ ১২:৫৯

ভারতে লোকসভার শেষ ধাপের নির্বাচনের ঠিক একদিন আগে গত শনিবার কেদারনাথ গুহায় ধ্যানে বসেছিলেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। দুই দিন পরে গতকাল রোববার সকালে ধ্যান ভঙ্গ করেন তিনি।

নির্বাচনের শেষ দিনের ঠিক আগে মোদির এমন ধ্যানে চলে যাওয়া নিয়ে সমালোচনা চলছে চারদিকে। এদিকে জানা গেছে যে গুহায় ধ্যানে বসেছিল মোদি, সেই গুহার রয়েছে বিশেষ কিছু বৈশিষ্ট্য। এই ‍গুহা অন্যান্য গুহার থেকে একদম আলাদা।

হিন্দুস্তান টাইমসের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, মোদি যে গুহায় ধ্যানে বসেছিলেন সেখানে ছিল ওয়াইফাই পরিষেবা। পাশাপাশি গুহার মধ্যে ছিল একটি টেলিফোন, ছিল বিলাসবহুল শৌচাগার। এমনকি জামাকাপড় রাখার জন্য হ্যাঙ্গারের ব্যবস্থাও রাখা হয়েছিল।

এই নিয়ে দুই ‌বছরে চারবার সেখানে যান প্রধানমন্ত্রী। ৮ ফুট বাই ৯ ফুটের এই গুহায় প্রবেশের দরজার উচ্চতা পাঁচ ফুটের।

প্রসঙ্গত, গত শনিবার সকালেই কেদারনাথ দর্শনে হাজির হন নরেন্দ্র মোদি। সেখানকার মন্দিরে পূজাও দেন। কেদারনাথের পরিকাঠামো উন্নয়নের বিষয়টিও খতিয়ে দেখেন তিনি। এরপর তিনি পাহাড়ি রাস্তা বেয়ে উপরে উঠতে শুরু করেন। প্রায় দুই কিলোমিটার ট্রেক করে পৌঁছান ওই গুহায়। পাহাড়ি পথে তাকে ছাতা ও লাঠি নিয়ে উঠতে দেখা যায়।

একটি সূত্র থেকে জানা গেছে, সংবাদমাধ্যমের অনুরোধে তিনি ধ্যানে বসার ছবি তুলতে দেন। তারপর ওই গুহায় আর কারও প্রবেশের অনুমতি দেওয়া হয়নি।