advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

জাপান ও সৌদি আরব যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী

কূটনৈতিক প্রতিবেদক
২১ মে ২০১৯ ০০:০০ | আপডেট: ২১ মে ২০১৯ ০০:৪৬
advertisement

জাপানের প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবের আমন্ত্রণে আগামী ২৮ মে দেশটি সফরে যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এর পর ইসলামী সহযোগিতা সংস্থার (ওআইসি) শীর্ষ সম্মেলনে অংশগ্রহণের জন্য তিনি সৌদি আরব সফর করবেন। সেখান থেকে দ্বিপাক্ষিক সফরে প্রধানমন্ত্রীর ফিনল্যান্ড যাওয়ার কথা রয়েছে। যদিও ফিনল্যান্ড সফর এখপনভ চূড়ান্ত হয়নি। যদি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ফিনল্যান্ড সফর করেন তা হলে তিনি ঈদের পর দেশে ফিরবেন। সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, জাপানের সবচেয়ে বড় গণমাধ্যম প্রতিষ্ঠান

নিক্কেই প্রতি বছরের মতো এবারও টোকিওতে ‘ফিউচার অব এশিয়া’ অনুষ্ঠানের আয়োজন করছে। আগামী ৩০ ও ৩১ মে অনুষ্ঠিতব্য এ আয়োজনে অংশ নিতে প্রধানমন্ত্রীকে আমন্ত্রণ জানিয়েছে নিক্কেই কর্তৃপক্ষ। প্রতিষ্ঠানটির ওয়েবসাইটে দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, ৩১ মে সকালে সেখানে শেখ হাসিনার ভাষণ দেওয়ার কথা। এর পর একটি অনুষ্ঠানে অংশ নিয়ে তিনি বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেবেন। একই দিন মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী ডা. মাহাথির মোহাম্মদও বক্তব্য দেবেন ওই অনুষ্ঠানে। পরদিন অন্য একটি অনুষ্ঠানে ফিলিপাইনের প্রেসিডেন্ট রদ্রিগো দুতের্তে অংশ নেবেন।

এদিকে ঢাকায় নিযুক্ত জাপানের রাষ্ট্রদূত হিরোয়াসু ঝুমি বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে বরণ করে নিতে প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবে ও জাপানের জনগণ ভীষণ আগ্রহ নিয়ে অপেক্ষা করছে। গতকাল প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎকালে তিনি এসব কথা বলেন। রাষ্ট্রদূত বলেন, জাপান বাংলাদেশের পরীক্ষিত বন্ধু। বাংলাদেশের উন্নয়ন অগ্রগতিতে জাপানের সহযোগিতা অব্যাহত থাকবে। আসন্ন সফরে বাংলাদেশের সঙ্গে জাপানের আড়াই বিলিয়ন ডলারের উন্নয়ন সহযোগিতা চুক্তি স্বাক্ষরিত হতে যাচ্ছে।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক কর্মকর্তা বলেন, বাংলাদেশ ও জাপান ৪০তম ওডিএ (অফিশিয়াল ডেভেলপমেন্ট অ্যাসিসটেন্স) প্যাকেজের জন্য আলোচনা করছে। এই প্যাকেজের আওতায় জাপান বাংলাদেশকে ২২০ কোটি ডলার সহায়তা দেবে। যা মাতারবাড়ি বন্দর ও বিদ্যুৎকেন্দ্র স্থাপনে ব্যবহার হবে। এ ছাড়া ম্যাস র‌্যাপিড ট্রান্সপোর্টের একটি অংশ বাস্তবায়নেও এখান থেকে অর্থ ব্যয় করা হবে। আশা করছি আগামী ২৯ মে জাপানের প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবের সঙ্গে বৈঠকের পর আমরা এ বিষয়ে একটি চুক্তি সই করতে সমর্থ হব।

শিনজো আবের সঙ্গে বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী রোহিঙ্গা ইস্যু সমাধানে জাপানের জোরালো সহযোগিতা চাইবেন বলেও জানা গেছে। সূত্র জানায়, বিভিন্ন দেশের নেতারা ‘ফিউচার অব এশিয়া’ অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করবেন। সেখানে সাইডলাইনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে বিশ্ব নেতাদের বৈঠক হতে পারে।

জাপান সফর শেষে প্রধানমন্ত্রী সৌদি আরব যাবেন। আগামী ৩১ মে মক্কায় ওআইসি সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে। এরই মধ্যে সৌদি বাদশাহ সালমান বিন আবদুল আজিজ আল সৌদ ১৪তম ওআইসি সম্মেলনে যোগ দিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে আমন্ত্রণ জানিয়েছেন। ঢাকায় নিযুক্ত ভারপ্রাপ্ত সৌদি রাষ্ট্রদূত আমের ওমর সালেম গত বৃহস্পতিবার গণভবনে গিয়ে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করে বাদশাহর আমন্ত্রণপত্রটি তার কাছে হস্তান্তর করেন।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সূত্র জানায়, মুসলিম বিশ্বের সংহতি কামনা করে প্রধানমন্ত্রী ওআইসি সম্মেলনে বক্তব্য দেবেন। এ ছাড়া রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানেও আন্তর্জাতিক সহায়তার বিষয়টিও তুলে ধরবেন তিনি। সম্মেলন শেষে একটি যৌথ ইশতেহার প্রকাশ করা হবে। এ ইশতেহারে রোহিঙ্গা ইস্যুটি যেন জোরালোভাবে আসে তার জন্য আলোচনা করবে বাংলাদেশ। সৌদি সফরকালে প্রধানমন্ত্রীর ওমরাহ হজ পালন এবং মদিনা সফর করার কথা রয়েছে।

advertisement