advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

বগুড়ায় আখক্ষেতে চাচি-ভাতিজার লাশ

নিজস্ব প্রতিবেদক, বগুড়া
২১ মে ২০১৯ ০০:০০ | আপডেট: ২১ মে ২০১৯ ০০:৪৮
advertisement

বগুড়ার শিবগঞ্জ উপজেলার একটি আখক্ষেতে পাওয়া গেছে চৈতী রানী দাস নামে এক গৃহবধূ ও তার ভাসুরের ছেলে কনক চন্দ্রের লাশ। গতকাল সোমবার সকাল ১০টার দিকে বাড়ির পাশের আখক্ষেত থেকে তাদের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। চৈতী উপজেলার গাংনগর মাঝপাড়ার সুবন্ধু দাসের স্ত্রী এবং কনক সুবন্ধুর বড় ভাই অমল চন্দ্র দাসের ছেলে।

শিবগঞ্জ উপজেলার মোকামতলা পুলিশ তদন্তকেন্দ্রের কর্মকর্তা পুলিশ পরিদর্শক সনাতন চন্দ্র সরকার জানান, চৈতীর স্বামী হতদরিদ্র কৃষক। তাদের দুটি মেয়ে রয়েছে। অমলের আপন বড় ভাইয়ের ছেলে কনক। তারা পাশাপাশি বাড়িতে বসবাস করতেন। আখক্ষেত থেকে দুজনের মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ হেফাজতে নেওয়া হয়েছে। পরিবার থেকে মামলার বিষয়টি নিশ্চিত না করায় ময়নাতদন্ত করতে লাশ মর্গে পাঠানো হবে কিনা তার সিদ্ধান্ত হয়নি।