advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

বিয়ের এক মাসের মাথায় গায়ে আগুন দিয়ে গৃহবধূর ‘আত্মহত্যা’

ফরিদগঞ্জ (চাঁদপুর) প্রতিনিধি
২১ মে ২০১৯ ১৬:৪৮ | আপডেট: ২১ মে ২০১৯ ১৬:৪৮

এক মাস আগে বিয়ে হয় তাহমিনা আক্তারের। ২২ বছর বয়সী এই তরুণী গতকাল সোমবার রাতে স্বামীর সঙ্গে ঝগড়া করে গায়ে আগুন দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন বলে অভিযোগ উঠেছে।  

চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জ উপজেলার পাইকপাড়া দক্ষিণ ইউনিয়নের জামালপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটেছে। জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তাহমিনার স্বামী দ্বীন ইসলামকে আটক করলেও পরে শ্বশুরের জিম্মায় তাকে ছেড়ে দিয়েছে পুলিশ। 

স্থানীয়দের বরাত দিয়ে পুলিশ জানায়, পরিবারের সস্মতিতে এক মাস তিনদিন আগে ফরিদগঞ্জের জামালপুর গ্রামের দ্বীন ইসলামের সঙ্গে নোয়াপাড়া গ্রামের কামাল হোসেনের বড় মেয়ে তাহামিনা আক্তারের বিয়ে হয়। গতকাল সন্ধ্যায় পারিবারিক বিষয় নিয়ে তাহামিনার সঙ্গে দ্বীন ইসলামের বাকবিতণ্ডা হয়। এ ঘটনার জের ধরে তাহমিনা নিজের গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুন দেন।

পরে পাশের লোকজন তাহমিনাকে উদ্ধার করে প্রথমে ফরিদগঞ্জ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে, পরে চাঁদপুর সদর হাসপাতালে এবং সর্বশেষ ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে অ্যাম্বুলেন্স যোগে নেওয়ার পথে দাউদকান্দি এলাকায় তিনি মারা যান। 

তাহমিনার বাবা কামাল হোসেন জানান, গতকাল মেয়ের শরীরে আগুন দেওয়ার খবর শুনে তিনি ছুটে যান চাঁদপুর সদর হাসপাতালে। সেখানে তাকে গুরুতর অগ্নিদগ্ধ তাহমিনা জানান, তিনি নিজেই নিজের শরীরে আগুন দিয়েছেন।

কামাল হোসেন আরও জানান, তার মেয়ে তাহমিনার মানসিক সমস্যা রয়েছে। বিয়ের আগে তাকে নিয়মিত ওষুধ খেতেন। কিন্তু স্বামীর বাড়িতে যাওয়ার পর তিনি ওষুধ খেতে পারেননি।

এ বিষয়ে ফরিদগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবদুর রকিব জানান, তাহমিনার বাবা কামাল হোসেন থানায় অপমৃত্যুর মামলা দায়ের করেছেন। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য চাঁদপুর পাঠানো হয়েছে।