advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

সুপেয় পানির জন্য আদালতে যেতে হলে দুঃখজনক

২৩ মে ২০১৯ ০১:৪২
আপডেট: ২৩ মে ২০১৯ ০৯:২০
advertisement

পানি মানুষের মৌলিক অধিকার। সেখানে সুপেয় পানির জন্য আদালতে যেতে হলে তা দুঃখজনক। ওয়াসার পানি নিয়ে সমালোচনার প্রেক্ষাপটে গতকাল বুধবার স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় কমিটির বৈঠকে এমন মন্তব্য করা হয়।

বৈঠকে সুপেয় পানি সরবরাহ নিশ্চিতে ওয়াসার সক্ষমতা বৃদ্ধির প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণের সুপারিশ করা হয়। এ ছাড়া ভূগর্ভস্থ পানির ব্যবহার কমিয়ে ভূ-উপরিস্থ পানির ব্যবহার বৃদ্ধির লক্ষ্যে পুকুর-খাল-জলাশয় পুনঃখনন করার সুপারিশ করা হয়। বৈঠকে ওয়াসার পানি নিয়ে গণমাধ্যমে প্রকাশিত প্রতিবেদন নিয়ে আলোচনা হয়।

কমিটি বর্ষা মৌসুম আসার আগেই জলাবদ্ধতা দূরীকরণে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ এবং ঢাকা সিটিতে বৃষ্টিতে সৃষ্ট জলাবদ্ধতা যাতে দ্রুত সময়ে অপসারণ করা যায় সে জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে সুপারিশ করে। ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের পক্ষ থেকে বৈঠকে জানানো হয়, জলাবদ্ধতা দূর করতে গত অর্থবছরে ১৫০ কিলোমিটার নর্দমা নির্মাণ করা হয়েছে। চলতি অর্থবছরে আরও ১৫০ কিলোমিটার নর্দমা নির্মাণের কাজ চলছে, যার প্রায় ৮০ শতাংশ কাজ শেষ হয়েছে।

ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন জানায়, গত অর্থবছরে ১৬৮ কিলোমিটার নর্দমা নির্মাণ ও উন্নয়নের কাজ করা হয়েছে। শান্তিনগর, মালিবাগ, রাজারবাগ, শাজাহানপুর, পল্টন, ফকিরাপুল, মতিঝিল, কমলাপুর এলাকার জলাবদ্ধতা নিরসনে ১১ দশমিক ৭২ নর্দমা নির্মাণের কাজ শেষ হয়েছে। বৈঠকে দেশের সিটি করপোরেশন ও পৌরসভাগুলোকে ট্যাক্স বৃদ্ধির লক্ষ্যে বিদ্যমান ট্যাক্স ব্যবস্থা সংস্কার করার সুপারিশ করা হয়।

বৈঠকে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, ভূ-উপরিস্থ পানির ব্যবহার বাড়াতে দুটি প্রকল্পের আওতায় ২০০টি নতুন পুকুর খনন এবং ৯৫২টি পুকুর পুনঃখননের কাজ চলছে। চট্টগ্রাম ওয়াসা চাহিদার প্রায় ৯০ শতাংশ পানি সরবরাহ করছে ভূ-উপরিস্থ উৎস থেকে। এটি শতভাগ করতে দুটি প্রকল্পের কাজ চলছে। ২০২২ সাল নাগাদ প্রকল্প দুটি শেষ হবে। এ ছাড়া স্থানীয় পর্যায়ে রাস্তাঘাট উন্নয়ন কার্যক্রম টেকসইকরণ নিয়ে আলোচনা হয়।

এ বিষয়ে কমিটির সদস্য মো. শাহে আলম আমাদের সময়কে বলেন, স্থানীয় পর্যায়ে রাস্তাঘাটের বেশ উন্নয়ন হয়েছে, তবে সেগুলো স্থায়ী হয় না। রাস্তায় পিচ ঢালাই দেওয়া হয়, সেগুলো কয়েক দিন পরেই উঠে যায়। তাই পিচের লেয়ার যেন আরও বাড়িয়ে দিয়ে উন্নয়ন টেকসই করা হয়, সে বিষয়ে বলা হয়েছে।

কমিটির সভাপতি খন্দকার মোশাররফ হোসেনের সভাপতিত্বে বৈঠকে আরও অংশ নেন কমিটির সদস্য প্রতিমন্ত্রী স্বপন ভট্টাচার্য, মসিউর রহমান রাঙ্গা, শেখ আফিল উদ্দিন, রেবেকা মমিন, রাজী মোহাম্মদ ফখরুল, মো. শাহে আলম, মো. ছানোয়ার হোসেন এবং আব্দুস সালাম মুর্শেদী। এ ছাড়া বিশেষ আমন্ত্রণে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের মেয়র সেলিনা হায়াৎ আইভী ও গাজীপুর সিটি করপোরেশনের মেয়র মো. জাহাঙ্গীর আলম উপস্থিত ছিলেন।

advertisement