advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

মেহজাবিন, সাফা, সাবিলাকে নিয়ে ‘আপত্তিকর’ মন্তব্য ইলোরা গহরের (ভিডিও)

বিনোদন প্রতিবেদক
২৩ মে ২০১৯ ১৫:২১ | আপডেট: ২৩ মে ২০১৯ ১৭:০৬

জনপ্রিয় অভিনেত্রী মেহজাবিন চৌধুরী অভিনয় জা‌নেন না বলে মন্তব্য করলেন জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত গুণী অভিনেত্রী ইলোরা গহর। সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকা‌রে এমনটা দাবি ক‌রে‌ন এই অভিনেত্রী। তিনি ব‌লেন, ‘মেহজা‌বিন দেখ‌তে সুন্দর। ত‌বে একদমই অভিনয় জা‌নে না।’

সাক্ষাৎকা‌রে ইলোরা গহরের প্রিয় অভিনেতা-অভিনেত্রীর সম্পর্কে জানতে চাওয়া হয়। সাফা কবির প্রসঙ্গ আসতে ইলোরা গহর হতভম্ব হয়ে জানতে চান, ‘সাফা, এরে তো আমি চিনিই না।’

‘সাবিলা নূর মিডিয়ার এসে নিজের জায়গা ধরে রাখতে পারেনি। তার শিল্পী হওয়ার যোগ্যতা নেই’ বললেন ইলারা গহর।

অপূর্বর অভিনয় প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘অপূর্বর অভিনয় আমার ভালো লাগে না। অভিনয়ে নিজস্ব স্টাইল দিয়ে নিজের অবস্থান তৈরি করেছেন এই শিল্পী।’

চলচ্চিত্রে চিত্রনায়ক শাকিব খানকে ছাড়া আর কোনো নায়ককে দেখেন না এই অভিনেত্রী। চলচ্চিত্রে এখন কোনো নায়িকা আসে নাই বলে মনে করেন ইলোরা গহর।

এছাড়াও চলচ্চিত্রের নায়িকা প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘পরীমনির নাম শুনছি, চিনি না। যে নায়িকার ছবি দেখে চিনতে না পারলাম... পরীমনি, মাহিকে এরা সব বড় লোকদের বিয়া কইরা ফালাইতাছে।’ আর শবনম বুবলীর নাম শুনে চমকে ওঠেন এই অভিনেত্রী। এছাড়াও নুসরাত ফারিয়াকে নাটকের নায়িকা মনে করেন ইলোরা গহর। বিদ্যা সিনহা মিমের কাজও তার ভালো লাগে না।

এদিকে, এই অভিনেত্রী সবচেয়ে প্রিয় শিল্পীর তালিকায় আছে ডলি জহুর। আর সুবর্ণা মুস্তাফাকে সবচেয়ে সুন্দর অভিনেত্রী মনে করেন তিনি। এছাড়াও জয়া আহসান, মোশাররফ করিম, ফজরুল রহমান বাবু, নাবিলা, সজল, নিলয়, আফরান নিশো, জোভান, তৌসিফ মাহবুবের অভিনয়ের প্রশংসা করেন ইলোরা গহর। আর বিজরী বরকতুল্লাহ ও তমালিকা কর্মকারকে ছন্নছাড়া অভিনেত্রী বলে আখ্যা দিলেন ইলোরা গহর।

উল্লেখ্য, স্বাধীনতা পদকপ্রাপ্ত গীতিকবি নয়ীম গহরের মেয়ে অভিনেত্রী ইলোরা গহর। ১৯৭৯ সালে মসিহউদ্দিন শাকের ও শেখ নিয়ামত আলী পরিচালিত ‘সূর্য দীঘল বাড়ি’ চলচ্চিত্রে অভিনয়ের জন্য তিনি জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পান। ইলোরা গহর প্রথম নাটকে অভিনয় করেন আবদুল্লাহ আল মামুনের রচনা ও আতিকুল হক চৌধুরীর প্রযোজনায় ‘তুমি সেই প্রজাপতি’ নাটকে। ১৯৮৯ সালে বিটিভিতে সর্বশেষ এ দুইজন মানুষের রচনায় ও প্রযোজনায় অভিনয় করেন ‘অসময়ের অতিথি’ নাটকে। বিরতির পর মোস্তফা সরয়ার ফারুকীর ‘ব্যাচেলর’ ও ‘চড়ুইভাতি’ সিনেমায় অভিনয়ের মধ্য দিয়ে বেশ আলোচনায় আসেন তিনি।