advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

ভারত দুদেশের সমস্যা সমাধানে ইতিবাচক হবে

কূটনৈতিক প্রতিবেদক
২৪ মে ২০১৯ ০০:০০ | আপডেট: ২৪ মে ২০১৯ ০৯:০৩
advertisement

ভারতে টানা দ্বিতীয়বারের মতো বড় জয়ে সরকার গঠন করতে যাচ্ছে বিজেপি নেতৃত্বাধীন এনডিএ জোট। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বিজেপিও সরকার গঠনের জন্য প্রয়োজনীয় ২৭২টি আসনের বেশি এককভাবে পেতে চলেছে। দ্বিতীয় মেয়াদে ভারতের সঙ্গে সম্পর্ক নিয়ে বিশ্লেষকরা বলছেন, দিল্লির সঙ্গে ঢাকার সম্পর্ক এখন যে পর্যায়ে তাতে সম্পর্কে তেমন নড়চড় হবে না।

তারা আশা করছেন, বিদ্যমান সমস্যা সমাধানে ভারত ইতিবাচক ভূমিকা রাখবে। সাবেক রাষ্ট্রদূত মোহাম্মদ জমির বলেন, নরেন্দ্র মোদির বর্তমান মেয়াদে ভারতের সঙ্গে আমাদের গুরুত্বপূর্ণ কিছু সমস্যার সমাধান হয়েছে। ছিটমহল সমস্যার সমাধান করেছি। সমুদ্রসীমায় আমরা আমাদের অধিকার প্রতিষ্ঠা করতে পেরেছি। এ ছাড়া বিনিয়োগ ও বাণিজ্য নিয়ে যে অস্পষ্টতা ছিল, সেটিও ভারতের বর্তমান সরকারের সময় অনেকটা কেটে গেছে। তবে এখনো আমাদের কিছু সমস্যা রয়ে গেছে।

আশা করছি, তিস্তাসহ অভিন্ন নদীর পানি বণ্টন সমস্যার সমাধানে নতুনভাবে নরেন্দ্র মোদির যে সরকার গঠিত হবে তারা ইতিবাচক ভূমিকা রাখবে। সাবেক রাষ্ট্রদূত ও আন্তর্জাতিক বিশ্লেষক এম হুমায়ুন কবীর বলেন, ভারত দক্ষিণ এশিয়ার সবচেয়ে বড় রাজনৈতিক শক্তি। এখন নরেন্দ্র মোদি যদি ইতিবাচকভাবে দক্ষিণ এশিয়ার রাজনীতিকে পরিচালিত করতে চান তা হলে পুরো দক্ষিণ এশিয়ার রাজনীতিতে পরিবর্তন আসবে।

মোদি যদি চান দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কের ভিত্তিতে দেশগুলোর সঙ্গে সম্পর্ক সেভাবে উন্নয়ন হবে। তিনি বলেন, ভারতের সঙ্গে বাংলাদেশের সম্পর্ক এখন যে পর্যায়ে তাতে নরেন্দ্র মোদির নতুন সরকারের সময় এই সম্পর্কে কোনো পরিবর্তন হবে না। এই সম্পর্কের সদ্ব্যবহার করে আমাদের মধ্যে অমীমাংসিত বিষয়গুলো সমাধানে কূটনৈতিক প্রচেষ্টা চালাতে হবে।

advertisement