advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় পৃথক সংঘর্ষে আহত ৭০

নিজস্ব প্রতিবেদক,ব্রাহ্মণবাড়িয়া
২৫ মে ২০১৯ ০০:০০ | আপডেট: ২৫ মে ২০১৯ ০৯:২৪
advertisement

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় পৃথক তিনটি সংঘর্ষে উভয়পক্ষের অন্তত ৭০ জন আহত হয়েছেন। গতকাল শুক্রবার সকাল থেকে জেলার সদর, সরাইল ও নাসিরনগরে এসব সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। সংঘর্ষের সময় দাঙ্গাবাজরা বাড়িঘর ভাঙচুর ও মালামাল লুটপাট করে নিয়ে যায়।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, সরাইল উপজেলার নোয়াগাঁও ইউনিয়নের তেরকান্দা গ্রামের নাজিম উদ্দিন ও স্থানীয় মেম্বার ফজলুর রহমানের মধ্যে জমি নিয়ে বিরোধ চলছিল।

সম্প্রতি এ ঘটনাটি নিয়ে সরাইল থানায় উপজেলা চেয়ারম্যান রফিক উদ্দিন ঠাকুর ও থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মফিজ উদ্দিন ভূঁইয়ার নেতৃত্বে সালিশের মাধ্যমে নিষ্পত্তি হয়। ফের গতকাল সকালে উভয়পক্ষের কমপক্ষে ৩ শতাধিক লোক দেশি অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে সংঘর্ষে লিপ্ত হয়। সকাল ৭টা থেকে ৪ ঘণ্টাব্যাপী সংঘর্ষে কমপক্ষে ৫০ জন আহত হন। আহতদের মধ্যে মালু সর্দার (৫৫) ও ইয়াছিনকে (২০) ঢাকায় পাঠানো হয়েছে।

গ্রেপ্তার-আতঙ্কে অন্যরা শহরের বিভিন্ন প্রাইভেট ক্লিনিকে চিকিৎসা নিয়েছে। সরাইল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মফিজ উদ্দিন ভূঁইয়া জানান, পুলিশ ৩৩ রাউন্ড রাবার বুলেট নিক্ষেপ করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। এ ঘটনায় সংঘর্ষ থেকে ৫ জনকে আটক করা হয়েছে। ঘটনাস্থলে পুলিশ মোতায়েন রয়েছে। এদিকে সদর উপজেলার পাঘাচং দক্ষিণপাড়া এলাকায় আপন দুই ভাই কাজী রহিছ মিয়া ও কুদ্দুস মিয়ার মধ্যে বাড়ির সীমানা নিয়ে বিরোধের জের ধরে সংঘর্ষে সাতজন আহত হয়েছে।

আহতরা হলো-বিলকিস, হৃদয়, রণি, মারুফ, হোসনে আরা, স্বপ্না ও নাজমুল। অন্যদিকে নাসিরনগর উপজেলায় বুড়িশ্বর ইউনিয়নের শ্রীঘর গ্রামে কেরাম বোর্ড খেলাকে কেন্দ্র করে দুপক্ষের সংঘর্ষে ৫ জন আহত হয়। এদের মধ্যে একজনকে গুরুতর আহত অবস্থায় ঢাকায় পাঠানো হয়েছে।

advertisement