advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

লাওস বধের মিশন শুরু

ক্রীড়া প্রতিবেদক
২৫ মে ২০১৯ ০০:০০ | আপডেট: ২৫ মে ২০১৯ ০৯:৩২
advertisement

মধ্যরাতে গোপালগঞ্জ থেকে ফিরে সকালেই হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে উদ্দেশে ছুট জাতীয় দলের তারকা মিডফিল্ডার সোহেল রানার। দুচোখের পাতা এক করার সময় পাননি। গোলাপগঞ্জে আবাহনীর হয়ে মুক্তিযোদ্ধার বিপক্ষে ম্যাচেই সোহেলকে ধরতে হয়েছে থাইল্যান্ডের বিমান। লাওসের বিপক্ষে ম্যাচ সামনে রেখে থাইল্যান্ডে দুই সপ্তাহের প্রস্তুতি ক্যাম্প করবে জাতীয় দল। ২৩ সদস্যের অন্যতম সদস্য সোহেল।

শুধু সোহেলই নয়, মাজহারুল ইসলাম হিমেল, মোহাম্মদ ইব্রাহিম, মামুনুল ইসলামরাও ব্যস্ততার মধ্যে তল্পিতল্পা গুছিয়ে চড়েছেন বিমানে। ২০২২ কাতার বিশ্বকাপে এশিয়া অঞ্চলের প্রাক-বাছাইপর্বের ম্যাচ শুরু হবে ৬ জুন থেকে। বাছাইপর্বে বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ লাওস। ৬ জুন ভিয়েনতিয়েন ম্যাচ খেলে ১১ জুন ঘরের মাঠে ফিরতি ম্যাচে লাওসকে আতিথ্য দেবে জেমি ডের দল। লাওসের বিপক্ষে ম্যাচটি বাংলাদেশের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। গত বাছাইপর্বে ভুটানের কাছে হেরে ফিফা-এএফসি থেকে তিন বছরের জন্য আন্তর্জাতিক ম্যাচবঞ্চিত লাল-সবুজরা। এবার লাওস পরীক্ষা।

প্রাক-বাছাইপর্বে লাওসের কাছে হারলেও একই পরিণতি বরণ করবে জেমির দল। ম্যাচটি তাই গুরুত্বসহকারে দেখছে দল। কাল থাইল্যান্ডের বিমানে চড়ার আগে সোহেল রানা জানান, লাওস ম্যাচটি আমাদের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। আমাদের জিততেই হবে। লাওসের বিপক্ষে নামার আগে থাইল্যান্ডে প্রস্তুতি ক্যাম্প হবে। প্রস্তুতিটা আমাদের কাজে দেবে। আমরা শতভাগ চেষ্টা দিয়ে দলকে সেরা কিছু উপহার দিতে চাই। সোহেলের মতো বসুন্ধরা কিংসের উইঙ্গার মোহাম্মদ ইব্রাহিমও রাতে ঘুমাতে পারেননি। আগের দিন নোয়াখালীতে নোফেলের বিপক্ষে ম্যাচ খেলেই গতকাল সকালে ধরতে হয়েছে থাইল্যান্ডের বিমান।

লাওস ম্যাচটি সামনে রেখে ইব্রাহিম জানান, ভুটান বিপর্যয়ের পর অনেক দিন মাঠের বাইরে ছিল জাতীয় দল। আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলার সুযোগ হারিয়েছিলাম আমরা। লাওসের বিপক্ষে সেই ভুল করতে চাই না। ভিয়েনতিয়েন থেকে জয় নিয়ে ফিরতে চাই। জয়ের বিকল্প নেই। কম্বোডিয়ার বিপক্ষে গত মার্চে সব শেষ ম্যাচ খেলে জাতীয় দলের ফুটবলাররা। ওই ম্যাচে প্রাথমিক দলে ছিলেন গোলরক্ষক মাজহারুল ইসলাম হিমেল। কিন্তু চূড়ান্ত স্কোয়াডে জায়গা হয়নি। লাওসের বিপক্ষে এই অভিজ্ঞ গোলরক্ষককে দলে রেখেছেন কোচ জেমি।

থাইল্যান্ডের উদ্দেশে ঢাকা ছাড়ার আগে হিমেল জানান, আমাদের দলটি ভালো হয়েছে। কোচ অভিজ্ঞতার পাশাপাশি তরুণদের নিয়ে একটা ভারসাম্যপূর্ণ দল গড়েছেন। লাওস ম্যাচটি আমাদের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। লাওসের বিপক্ষে মাঠে নামার আগে থাইল্যান্ডে প্রস্তুতি ক্যাম্প এবং দুটি প্রস্তুতিমূলক ম্যাচ খেলব আমরা, যা লাওস ম্যাচে কাজে দেবে।